ঢাবি জিয়া হলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ঢাবি
  © সংগৃহীত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল আজ সোমবার (২৯ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের সকালে কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ বিভাগের আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী হোসেন এয়াছিন আরাফাত এবং রানার্স-আপ হয়েছেন শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী মো. আসিফ মেহমুদ আবাবিল। 

খেলায় সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। খেলা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্য বহুলাংশে নির্ভর করে শারীরিক সুস্থতার উপর। মেধা-মননের পূর্নাঙ্গ বিকাশে এবং শারীরিক সুস্থতা বজায় রাখতে শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রমের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত ক্রীড়া ও শরীর চর্চার উপর তিনি গুরুত্বারোপ করেন। পড়াশোনায় ভালো ফলাফল করার সাথে সাথে সহশিক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা নেতৃত্বের গুণাবলী অর্জন করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। দক্ষ ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠে দেশ ও মানুষের সেবায় কাজ করার জন্য উপাচার্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান।

কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বিজয়ী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, নিয়মিত খেলাধুলায় অংশগ্রহণ শিক্ষার্থীদের শারীরিক সুস্থতার পাশাপাশি মনকে প্রফুল্ল রাখে। পরিপূর্ণ মানুষ ও দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলতে পড়াশুনার পাশাপাশি নিয়মিত ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমে অংশগ্রহণের জন্য তিনি শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান।

হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া, শারীরিক শিক্ষা কেন্দ্রের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. অসীম সরকার, কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. শাহজাহান আলী, মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের ক্রীড়া কমিটির অহ্বায়ক এ. বি. এম, নাজমুস সাকিব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় মোট ২০টি ইভেন্টে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও স্বেচ্ছাসেবকরাও অংশ নেয়।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ