স্মৃতিসৌধ ও শহীদ মিনারে জাবি শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা

জাবি
  © সংগৃহীত

সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন শিক্ষক সমিতির নেতারা।

বৃহস্পতিবার (০১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে এবং বেলা ১১টার দিকে স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা৷

ভাষা শহীদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মো. মোতাহার হোসেন বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বিষয়ে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার থাকবে। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিতকরণে আমাদের যা যা করা যেতে পারে সেগুলোর একটি কার্যপ্রণালি ঠিক করতে আমরা শীঘ্রই সকলকে নিয়ে বসব।'

শিক্ষক সমিতির সম্পাদক অধ্যাপক শাহেদ রানা বলেন, 'শিক্ষকদের অগ্রাধিকার দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য অংশীজনের দাবি দাওয়া সমূহের একটি তালিকা করে আমরা আগামী কার্যনিবার্হী সভায় সেগুলো উপকমিটি অনুযায়ী বন্টন করবো। আশা করি, সকলের প্রচেষ্টা ও সহযোগিতায় অনেক বেশি ফলপ্রসূ কাজ করতে পারবো।'


সহ-সভাপতি অধ্যাপক সোহেল আহমেদ বলেন, আমরা দায়িত্বগ্রহণের পর ভাষা শহীদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শুরু করলাম। আশা করছি আমাদের উপর অর্পিত যে দায়িত্ব সহকর্মীরা তুলে দিয়েছেন তা সফলভাবে পালন করতে পারবো।

এর আগে, গত ২৯ জানুয়ারি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতি পদে ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশনের (আইবিএ-জেইউ) অধ্যাপক মো. মোতাহার হোসেন এবং সম্পাদক পদে রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক শাহেদ রানা নির্বাচিত হন।

নির্বাচনে সহ-সভাপতি হয়েছেন প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সোহেল আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ হয়েছেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মো. এজহারুল ইসলাম এবং যুগ্মসম্পাদক হয়েছেন পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

এছাড়া নির্বাহী সদস্য হয়েছেন ফার্মেসী বিভাগের অধ্যাপক কে. এম. খায়রুল আলম, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক সুফি মোস্তাফিজুর রহমান, প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সুব্রত বনিক, ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বিভাগের অধ্যাপক আইরিন আক্তার, ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক খো. লুৎফুল এলাহী, লোক প্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক মো. নুরুল আমিন, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক রেজাউল রনি, নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ফাহমিদা, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জহিরুল ইসলাম খন্দকার এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আফসানা হক।


মন্তব্য