নোবিপ্রবি ছাত্রের ওপর হামলার ঘটনায় ৭ জন কারাগারে

নোবিপ্রবি
  © সংগৃহীত

উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ছাত্র শামীম আহমেদকে মারধরের ঘটনায় সাত যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ শুক্রবার(২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- রাব্বি (২৮), রনি (২৪), অধির (১৮), শাওন (১৮), রাফসান (২০)। গ্রেপ্তারকৃত অন্য দুজনের নাম জানা সম্ভব হয়নি।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে নোয়াখালীর মাইজদি হাউজিং এলাকা ও আশপাশের স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে আটক করে র‌্যাব। পরে তাদের সুধারাম থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় আরও দুইজনকে আটক করে পুলিশ। এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় মোট সাত জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

র‌্যাব-১১ সিপিসি-৩ সহকারী পুলিশ সুপার স্কোয়াড কমান্ডার গোলাম মোর্শেদ জানান, গত বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধ স্টাডিজ বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র শামীম আহমেদ ও তার বন্ধুরা মাইজদি শহরের হাউজিং এলাকায় ভাড়া নিতে বাসা খুঁজছিলেন। এ সময় কয়েকজন যুবক তাদের পিছু নিয়ে মেয়ে শিক্ষার্থীদের উত্ত্যক্ত করতে থাকে। শামীম এর প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করা হয়। এতে শামীম গুরুতর আহত হলে তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।

তিনি আরও জানান, আটককৃতরা দীর্ঘদিন থেকে মাইজদি ও তার আশপাশের এলাকায় মারামারি, দাঙ্গা-হাঙ্গামাসহ নানা অপরাধমূলক কাজ করে আসছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুধারাম মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহেদুল হক রনি বলেন, র‍্যাবের অভিযানের পরপরই আরও ২ জনকে আটক করে পুলিশ। পরে থানায় একটি মামলায় ৭ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। আজ বিকেলে গ্রেপ্তারকৃতদের নোয়াখালী আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ