ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগের ১১তম স্বেচ্ছাসেবক সংগ্রহের কার্যক্রম সম্পন্ন 

রাবি
  © টিবিএম ফটো

বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ স্বেচ্ছাসেবক সংঘ ও শিক্ষার্থীদের মিলনস্থল 'ইউনাইটেড ন্যাশন্স ইউথ অ্যান্ড স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ' (ইউনিস্যাব) রাজশাহী বিভাগের উদ্যোগে শেষ হলো ১১তম স্বেচ্ছাসেবী সংগ্রহ ২০২৪- এর কার্যক্রম। 

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দিনব্যাপী আগ্রহী প্রার্থীদের বুদ্ধিমত্তার পরীক্ষা, ফোকাস গ্রুপ আলোচনা এবং সরাসরি সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলে চূড়ান্তপর্ব অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে উপস্থিত ছিলেন ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগের প্রাক্তন সদস্য সুমাইয়া ইসলাম উর্মি সাবেক কোর্ডিনেটর অব অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, অপূর্ব কর্মকার সাবেক কোর্ডিনেটর অব লজিস্টিক, অনিক চন্দ্র শীল সাবেক রিজিওনাল সেক্রেটারি এবং ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগের চলমান কার্যনির্বাহী কমিটি। 

এসময় বর্তমান আঞ্চলিক সম্পাদক আখতারুজ্জামান বাবু ইউনিস্যাবের পক্ষ থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারা বাংলাদেশে সামাজিক কার্যক্রমের মাধ্যমে জ্ঞানভিত্তিক সমৃদ্ধ সমাজ গঠনের পাশাপাশি তরুণদের মান উন্নয়নে যারা কাজ করে যাচ্ছে তাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।

'ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগের ১১তম স্বেচ্ছাসেবী সংগ্রহ ২০২৪'- এর প্রাথমিক পর্যায়ে আবেদন করে প্রায় ৪০০ জন আগ্রহী প্রার্থী। তাদের পর্যায়ক্রমে বুদ্ধিমত্তার পরীক্ষা, ফোকাস গ্রুপ আলোচনা এবং সাক্ষাৎকার গ্রহণের মাধ্যমে যাচাই বাছাই করে স্বেচ্ছাসেবী সংগ্রহ প্রক্রিয়া শেষ করা হয়। বস্তুত এই তরুণরা যাতে ভবিষ্যতে দেশের কল্যাণে জাতিকে নেতৃত্ব দিতে পারে তা বিবেচনা করে যোগ্য স্বেচ্ছাসেবক বাছাই করা হয়।

যুবসমাজের গঠনমূলক উন্নয়ন ও নেতৃত্বের বিকাশকে প্রতিপাদ্য রেখে 'স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রমের মাধ্যমে নেতৃত্বের বিকাশ' এই স্লোগান নিয়ে ২০১৪ সালে যাত্রা শুরু করে ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগ। প্রতিবছর ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগ ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন এবং এর পাশাপাশি বিভিন্নধরনের ব্যক্তিক দক্ষতার উন্নয়নমূলক সেমিনার ও কর্মশালার আয়োজন করে থাকে। সংকটময় সময়ে ইউনিস্যাব রাজশাহী বিভাগ রয়েছে অসহায়, বন্যায় কবলিত ও অর্থহীন মানুষের পাশে।

এছাড়াও বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবস উদযাপন, শীতকালীন শীতবস্ত্র বিতরণ, ইদ ফর স্ট্রিট চিলড্রেন, প্রজেক্ট হ্যাপি বার্থডে, বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ক্রান্তিকালে বহুবিধ সহায়তা কার্যক্রম, সমাজ সংস্কারসহ বিবিধ কার্যক্রমের মাধ্যমে সামাজিক দায়বদ্ধতা রক্ষায় অগ্রণী ভূমিকা রাখার মাধ্যমে বাংলাদেশের অন্যতম যুব সংগঠন ইউনিস্যাব দীর্ঘদিন ধরে সাফল্যের সাথে কাজ করে যাচ্ছে।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ