পেনশন প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবিতে ঢাবিতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিক্ষোভ 

ঢাবি
  © টিবিএম

সরকারের পেনশন সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনকে বৈষম্যমূলক দাবি করে তা বাতিলের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুপুর ১২ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্মৃতি চিরন্তন চত্বরে এ কর্মসূচি পালন করেন তাঁরা। সমাবেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি মোতালেব বলেন, বঙ্গবন্ধু বলেছেন শিক্ষা খাতে বিনোয়গের চেয়ে আর বড় কোন বিনিয়োগ হতে পারে না৷ বঙ্গবন্ধু তাঁর কথা রেখেছেন। বঙ্গবন্ধুর যোগ্য কন্যার কাছে আমাদের আবেদন আপনি এই বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন পুনর্বিবেচনা করবেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কখনো কোন অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয় না। ভবিষ্যতেও দিবে না। 

এসময় তিনি পেনশন স্কিম প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী ৪ জুন সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী সকাল ১১ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালন করবেন বলে জানান। তারপরেও দাবি আদায় না হলে লাগাতার কর্মবিরতির হুশিয়ারিও উচ্চারণ করেন তিনি।

সমাবেশে কর্মচারী সমিতির সভাপতি সরোয়ার মোর্শেদ বলেন, আমরা যখন রিটায়ার্মেন্টে যাই তখন আমাদের একটা ভাতা দেওয়া হয়। কিন্তু প্রত্যয় স্কিমে আমাদের সেরকম কোন দিক নির্দেশনা নেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধুর বিশ্ববিদ্যালয়। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আহ্বান করবো আপনি প্রত্যয় স্কিমের নির্দেশনা পুনর্বিবেচনা করবেন। এছাড়াও বৈষম্যমূলক পে স্কেল বাতিল করে একটি বৈষম্যহীন পে স্কেল ঘোষণা করবেন। 

সমাবেশে কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বলেন, আজকে নতুন করে আমাদের পে স্কেল দেওয়ার কথা। ২০১৫ সালে আমরা পে স্কেল পেয়েছি তখন অনেক বৈষম্য হয়েছে যা আজও দূর করা হয়নি। এখন নতুন পে স্কেল না দিয়ে আমাদের উপর বৈষম্যমূলক পেনশন চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আমাদের উপর এই অন্যায় কখনো মেনে নেয়া হবে না৷


মন্তব্য