হাবিপ্রবিতে স্কীল ডেভেলপমেন্ট ক্লাবের আয়োজনে ‘হ্যাক কোয়েস্ট ২.০’ অনুষ্ঠিত

হাবিপ্রবি
  © টিবিএম ফটো

দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৫ দিন ব্যাপী নিউট্রিশন কেম্পেইনের ফাইনাল রাউন্ড  "হ্যাক কোয়েস্ট ২.০" অনুষ্ঠিত হয়েছে।

"হ্যাক কোয়েস্ট ২.০" একটি দিনব্যাপী হ্যাকাতন প্রোগ্রাম৷ এতে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন ডিপার্টমেন্টের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। হাবিপ্রবি ক্যাম্পাস এরিয়াতে কিভাবে নিউট্রিশন সিকিউরিটি নিশ্চিত করা যায় সে বিষয় নিয়ে কেস সলভ করে শিক্ষার্থীরা।

শনিবার (১ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-১ এ অনুষ্ঠিত হয় উক্ত প্রোগ্রামটি। যেখানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুরো প্রোগ্রামের ফুড সাইন্স এন্ড নিউট্রিশন ডিপার্টমেন্টের সহযোগী অধ্যাপক ডা.আনোয়ার আক্তার খাতুন এবং ক্রপ ফিজিওলজি এন্ড ইকোলজি ডিপার্টমেন্টের সহকারী অধ্যাপক সুব্রত কুমার প্রামাণিক। তাছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ক্লাবের উপদেষ্টা শিক্ষকগণ। পুরো কেম্পেইনের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে ছিলেন ফিটসুমনিয়া যেটি বাংলাদেশের প্রথম ফিটনেস রিলেটেড সোস্যাল মিডিয়া প্লার্টফর্ম। তাছাড়া নিউট্রিশন পার্টনার হিসেবে ছিলো গ্রামীণ ডেনন শক্তি প্লাস, এবং লার্ণিং পার্টনার হিসেবে ছিলো লীড একাডেমি যারা আমাদের প্রতিযোগিদের বিভিন্ন কোর্স ৫০-১০০% ছাড়ে অফার করবে। 

স্কীল ডেভেলপমেন্ট ক্লাব অব এইচ এস টি ইউ এর সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, "স্কীল ডেভেলপমেন্ট ক্লাব অব এইচ এস টি ইউ ক্যাম্পাসের  সাধারণ শিক্ষার্থীদের কোয়ালিটি  ডেভেলপমেন্ট প্রসেসে সাহায্য করতে সবসময় বদ্ধপরিকর। এরই ধারাবাহিকতায় আমাদের ১৫ দিনের কেম্পেইনের ফাইনাল রাউন্ডে একটি দিনব্যাপী কেইস সলভিং ইভেন্ট আয়োজন করি আমরা যেখানে বিষয়বস্তু ছিলো ক্যাম্পাস এরিয়াতে কিভাবে নিউট্রিশন সিকিউরিটি নিশ্চিত করা যায়।পুরো কেম্পেইনের ভলান্টিয়ার, প্রতিযোগী, বিচারক মন্ডলী, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং সকল স্পন্সরদের ধন্যবাদ।"


উল্লেখ্য, স্কিল ডেভেলপমেন্ট ক্লাব অব এইচ এস টি ইউ লিডারশীপ ও আত্নউন্নয়নমূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে।


মন্তব্য