বাকৃবিতে দুধের ভেজাল সনাক্তকরণে কর্মশালা

বাকৃবি
  © টিবিএম

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ‘এনআইআর স্পেকট্রোস্কোপি দ্বারা পাস্তুরিত দুধ এবং দুধের গুঁড়ার বৈশিষ্ট্য এবং ভেজাল সনাক্তকরণ’-শীর্ষক কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের সম্মেলন কক্ষে ঐ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে ফুড টেকনোলজি ও গ্রামীণ শিল্প বিভাগের অধ্যাপক ড. মো আব্দুল আলীমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো জয়নাল আবেদীন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের (বাউরেস) পরিচালক প্রফেসর ড. মাহফুজা বেগম। এছাড়াও কৃষি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ফুড টেকনোলজি ও গ্রামীণ শিল্প বিভাগের অধ্যাপক ড. আবদুল্লাহ ইকবাল। এ সময় তিনি বলেন, দুধ একটি সুপারফুড। সব পুষ্টি এই খাদ্যে আছে। এনআইআর স্পেকট্রোস্কোপি যন্ত্রটি নির্দিষ্টি তরঙ্গদৈঘ্য খাবারের উপর প্রয়োগ করে। এটির মাধ্যমে দুধের বৈশিষ্ট জানা যাবে। এই যন্ত্রটি বাজারের দুধের ভেজাল নির্ণয় করতে পারবে।

এ সময় অধ্যাপক ড. মো আব্দুল আলীম বলেন, আমরা অনেক সময় ভেজাল খাবার খাওয়ার পরও আমরা সহ্য করতে পারি। কিন্তু শিশুরা সেটা সহ্য করতে পারে না। ফলে তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাবে। তাদের মেধার বিকাশ ঘটবে না। আমাদের প্রয়োজনীয় খাবারগুলো যাতে ভেজাল না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। আমাদের গবেষকদের বাজারে যে খাবার পাওয়া যাবে তা খুব সহজে ভেজাল নির্ণয় করতে পারা যায় সেই ভিত্তিক হতে হবে। তার পরিত্রাণ পাওয়ার উপায় বের করতে হবে।


মন্তব্য