জবি শিক্ষার্থীদের কোটা বিরোধী  আন্দোলনে অচলাবস্থায় পুরান ঢাকা 

জবি
  © সংগৃৃহীত

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকুরিতে মুক্তিযোদ্ধাসহ ৩০ শতাংশ কোটা পুনর্বহাল সংক্রান্ত হাইকোর্টের দেওয়া রায়কে প্রত্যাখ্যান করে ছাত্র সমাবেশ করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা। গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে রাস্তা অবরোধে আসেপাশে সৃষ্টি হয়েছে অচলাবস্থা।

বুধবার (৩জুলাই)  ‘বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়’র ব্যানারে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তাঁতিবাজার গিয়ে রাস্তা অবরোধ করে দেয়। 

শিক্ষার্থীদের রাস্তা অবরোধের সময় পুরো পুরান ঢাকা অচল হয়ে পড়ে। এতে ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষজন। সদরঘাটগামী গাড়িগুলোও আটকা পড়ে এ সময়। 

সরকারি দপ্তর, স্বায়ত্তশাসিত বা আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন করপোরেশনে চাকরিতে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে (৯ম থেকে ১৩ তম গ্রেড) কোটা বাতিলসংক্রান্ত পরিপত্র অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ রায়ের প্রতিবাদে লাগাতার আন্দোলন করে আসছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীরা।

ju-kota-movement (1)

আন্দোলনের নেতৃত্ব দেওয়া রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী জসিম উদ্দিন  বলেন, ‘আমরা সংস্কার না, সম্পূর্ণ কোটা বাতিল চাই। দাবি না মানা পর্যন্ত লাগাতার রাস্তা অবরোধ কর্মসূচি চলবে আমাদের।’

মিছিলে শিক্ষার্থীরা ‘লেগেছে রে লেগেছে, রক্তে আগুন লেগেছে’, ‘মেধাবীরা আসছে, রাজপথ কাঁপছে’, ‘মুক্তি চাই-মুক্তি চাই, কোটা থেকে মুক্তি চাই’সহ বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। এছাড়া বুকে কোটা বাতিল চাই লিখে আন্দোলনে অংশ নেয় এক শিক্ষার্থী।


মন্তব্য