কোটা বহালের প্রতিবাদে মহাসড়কে জাবি শিক্ষার্থীদের অবরোধ

কোটা
  © ফাইল ছবি

সরকারি চাকুরীতে কোটা ব্যবস্থার যৌক্তিক সংস্কারসহ ৪ দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (০৪ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে থেকে মিছিল নিয়ে ঢাকা-মহাসড়কে অবস্থান নেয় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থরা প্রায় ৩০ মিনিট শিক্ষার্থীরা অবস্থান করে। 

শিক্ষার্থীদের অন্য দাবিগুলো হলো, ২০১৮ এর পরিপত্র বহাল সাপেক্ষে কমিশন গঠন করে দ্রত সময়ের মধ্যে সরকারি চাকরিতে (সকল গ্রেডে) কোটা বাদ দেওয়া, সংবিধান অনুযায়ী কেবল অনগ্রসর ও সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীরজন্য কোটা  সংরক্ষণ, সরকারি চাকরির নিয়োগ পরীক্ষায় কোটা সুবিধা একাধিকবার ব্যবহারের সুযোগএবং কোটায় যোগ্য প্রার্থী না পাওয়া গেলে শুন্য পদগুলোতে মেধা অনুযায়ী নিয়োগ প্রদান, দুর্নীতিমুক্ত, নিরপেক্ষ ও মেধাভিত্তিক আমলাতন্ত্র নিশ্চিত করতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

এসময় আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী তৌহিদ মোহাম্মদ সিয়াম বলেন, আজকে কোটা নিয়ে আদালত কি তালবাহানা করেছে সেটা আপনারা ভালো করেই জানেন। আমরা এই বৈষম্যের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেই যাবো। আজকে আমরা হয়তো স্বল্প সময়ের জন্য অবরোধ করেছি। যদি ছাত্রসমাজের বিরুদ্ধে রায় আসে তাহলে আমরা তা মানবো না। প্রয়োজনে আমরা ঢাকা- আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের যোগাযোগ বন্ধ করে দিবো। এতে করে অ্যাম্বুলেন্সে  যদি একজন রোগীরও ক্ষতি হয় সেটার দায় রাষ্ট্রপক্ষ নিবে। আজকে এইচএসসি পরীক্ষার জন্য আমাদের অবরোধ কর্মসূচী শেষ করছি, আমাদের পরবর্তী কর্মসূচী জানিয়ে দেওয়া হবে। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মাহফুজ ইসলাম মেঘ বলেন , হাইকোর্ট আজকে কোটা পুনর্বহালের রায় বহাল রেখেছে , তারই প্রতিবাদে আমরা রাস্তা অবরোধ করেছি । যেহেতু এখনো শুনানি দেয় নি  সেটার উপর আশা রেখে জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে আমরা এখনো অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য কর্মসূচি দেই নাই , তবে আজকের এই প্রতীকী কর্মসূচি থেকে জানাতে চাই , যদি এই কোটা প্রথা বহালের টালবাহানা করা না , তাহলে কঠোর কর্মসূচির মাধ্যমে সারা দেশ অচল করার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো

বিশ্বিবদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আলমগীর কবির বলেন, কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদের কর্মসূচি হিসেবে সারা বাংলাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ন্যায় এখানেও শিক্ষার্থীরা প্রতীকী হিসেবে রাস্তা অবরোধ করেছে , অবরোধের সময় এমার্জেন্সী গাড়ি এবং এবং এম্বুলেন্স গুলো বিকল্প রাস্তা হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর দিয়ে পার করিয়ে দিচ্ছি। শিক্ষার্থীদের সাথে কথা হয়েছে , তারা জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে এবং চলমান এইচ এস সি পরীক্ষার কথা চিন্তা করে , পরীক্ষা শেষ হবার আগেই অবরোধ করসূচি শেষ করবে।


মন্তব্য