কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে রবি শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ 

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়
  © টিবিএম

বৈষম্যমূলক কোটাপ্রথা পূণর্বহালের রায় বাতিল এবং কোটার যৌক্তিক সংস্কারের দাবিতে ঢাকা-পাবনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেছে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীরা কোটা না মেধা? মেধা মেধা, কোটা প্রথা নিপাত যাক, মেধাবীরা মুক্তিপাক ইত্যাদি স্লোগানে উত্তাল করে ঢাকা-পাবনা মহাসড়ক। শনিবার (৬ জুলাই) দুপুর ৩.৩০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবন-২ এর  বিসিক বাসস্ট্যান্ড সংলগ্নে ঢাকা-পাবনা মহাসড়ক অবরোধ করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। পরে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা মিছিল নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক ভবন-৩ থেকে অ্যাকাডেমিক ভবন-১ এবং শাহজাদপুর শহরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে।

এসময় শিক্ষার্থীরা ‘কোটা না মেধা? মেধা মেধা’, আপোষ না সংগ্রাম-সংগ্রাম সংগ্রাম’, ‘আঠারোর পরিপত্র-পুনর্বহাল করতে হবে’, ‘কোটাপ্রথা নিপাত যাক-মেধাবীরা মুক্তি পাক’, ‘সারা বাংলায় খবর দে-কোটাপ্রথার কবর দে’, ‘আমার সোনার বাংলায়-বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘জেগেছে রে জেগেছে-ছাত্র সমাজ জেগেছে’, ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

আন্দোলনের নেতৃত্বে থাকা এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন যৌক্তিক আন্দোলন। মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল বৈষম্যকে কবর দিতে, সেখানে মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে বৈষম্য আমরা মানতে চাইনা। কোটা সংস্কার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে।’

আরেক আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী বলেন, কোটা পদ্ধতির ফলে দেশের বৃহত্তর অংশ চাকরি বৈষম্যে ভুগছে। এই বৈষম্য রোধে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন করছি। কোটাধারী একটা পরিবার একটা সুযোগ নিতে পারবেন। কোনো কোটাধারী উচ্চ শিক্ষা নিতে কোটা ব্যবহার করলে সে পরবর্তীতে  চাকরির জন্য আর কোটা পাবেন না। এমন ব্যবস্থা করা হোক।


মন্তব্য