কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়
  © টিবিএম

বৈষম্যমূলক কোটার পক্ষে হাইকোর্টের রায় বাতিল করে সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতিতে সংস্কার এবং ২০১৮ সালে জারি করা পরিপত্র বহাল রাখার দাবিতে আন্দোলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। রবিবার (৭ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের 'জয় বাংলা' ভাস্কর্য প্রাঙ্গনে কোটাবিরোধী আন্দোলনে অংশ নেয় শতাধিক শিক্ষার্থী। এসময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা কোটাবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান ও বক্তব্য প্রদান করেন। 

আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা কোটা প্রথা সংস্কারের দাবিতে এখানে একত্রিত হয়েছি। বাংলাদেশের বিভিন্ন চাকরীর পরীক্ষা বা যেকোনো জায়গায় আজকে কোটার জন্য মেধাবীরা বঞ্চিত হচ্ছে। তাই আমরা চাই বাংলাদেশের সকল জায়গা থেকে কোটাকে তুলে নেওয়া হোক। আমরা মুক্তিযুদ্ধাদের সম্মান করি। মুক্তিযুদ্ধে তাদের অবদান আমরা অস্বীকার করি না। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধে তাদের নাতি-নাতনীদের কি ভূমিকা ছিলো আমরা জানতে চাই। তাই অবিলম্বে সকল অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক প্রথা ব্যবস্থাকে তুলে দিয়ে মেধাবীদের অধিকারকে প্রতিষ্ঠা করা হোক। 

আন্দোলনে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা কোটাবিরোধী নানা স্লোগান দিতে থাকেন, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল ‘আঠারোর হাতিয়ার, গর্জে উঠুক আরেকবার’, ‘জেগেছেরে জেগেছে, ছাত্রসমাজ জেগেছে’, ‘কোটা না মেধা? মেধা, মেধা’, কোটা না যোগ্যতা?  যোগ্যতা, যোগ্যতা', ‘মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই।'

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, খুব শিঘ্রই আন্দোলনের পরবর্তী কর্মসূচী জানানো হবে। ঈদুল আজহা ও গ্রীষ্মকালীন অবকাশ শেষে ৭ জুলাই থেকে ক্যাম্পাস খোলায় শিক্ষার্থীরা অনেকে ক্যাম্পাসে আসেন নি। সবাইকে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।


মন্তব্য