শিক্ষক-কর্মকর্তাদের আন্দোলনের ৭ম দিনে স্থবির নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়
  © টিবিএম

বৈষম্যমূলক সর্বজনীন পেনশন প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবিতে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ডাকা কর্মবিরতিতে অচল হয়ে পড়েছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়। স্থগিত রয়েছে সকল একাডেমিক ও দাপ্তরিক কর্যক্রম। কর্মবিরতির সপ্তম দিনে রবিবার (৭ জুলাই) শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুষার কান্তি সাহার সভাপতিত্বে শিক্ষক লাউঞ্জ "মুখবন্ধে" সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালন করেছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। এসময় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ শফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় শিক্ষক নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে প্রত্যয় স্কিমের কুফল তুলে ধরে দ্রুতই প্রজ্ঞাপনটি প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এছাড়াও 'প্রত্যয় স্কিম' সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার, সুপার গ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতনস্কেল প্রবর্তনে এখনও কোন কার্যকর পদক্ষেপ না নেওয়ায় শিক্ষা ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতি তীব্র নিন্দা জানান।পাশাপাশি একইদিন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মকর্তা পরিষদ, কর্মচারী সমিতি (গ্রেড ১১-১৬) ও কর্মচারী ইউনিয়নের (গ্রেড ১৭-২০) সমন্বয়ে গঠিত কর্মকর্তা-কর্মচারী ঐক্য পরিষদ টানা পঞ্চম দিনের মতো কর্মবিরতি, অবস্থান কর্মসূচি ও প্রতিবাদ র‍্যালী করে। 

অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, কর্মকর্তা পরিষদের সভাপতি মোঃ মোকাররেম হোসেন মাসুম, কর্মকর্তা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম খলিল, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম, কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুবকর সিদ্দিক, কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ রেজাউল করিম রানা, কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মজিবর রহমানসহ অন্যান্যরা।


মন্তব্য