কোটা সংস্কারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ ইবি শিক্ষার্থীদের, সড়কে দীর্ঘ যানজট

ইবি
  © টিবিএম

সরকারি চাকরির সব গ্রেডে অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে কোটাপদ্ধতিকে সংস্কার করার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১০ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা প্রাঙ্গণ থেকে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের ব্যানারের বিক্ষোভ বের করেন শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়কসমূহ প্রদক্ষিণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়কে অবস্থান নেয়। পরে সড়কের উভয় দিকে গাছের গুঁড়ি ফেলে ব্লকেড গড়ে তোলেন শিক্ষার্থীরা। এতে সড়কটিতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। মহাসড়কটিতে প্রায় ৪ ঘন্টা অবরোধ করে রাখেন শিক্ষার্থীরা। পরে বিকাল ৩টার দিকে অবরোধ তুলে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন ইবি সমন্বয়ক এস এম সুইট বলেন, যতদিন পর্যন্ত দাবি আদায় না হবে ততদিন পর্যন্ত আমাদের এই বৈষম্যবিরোধী আন্দোলন চলমান থাকবে।

প্রসঙ্গত, সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান ৫৬ শতাংশ কোটা কমিয়ে ১০ শতাংশ করার দাবিতে ২০১৮ সালে সারা দেশের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন গড়ে তোলেন। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে পরিচালিত ওই আন্দোলনের ফলে সরকার সব ধরনের কোটা বাতিল ঘোষণা করেন। পরে ওই বছরের ৪ অক্টোবর ১ম ও ২য় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটাপদ্ধতি বাতিল করে পরিপত্র জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। 

এ দিকে ওই পরিপত্রের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে চাকরিপ্রত্যাশী ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তান অহিদুল ইসলামসহ ৭জনের করা এক রিটের প্রেক্ষিতে চলতি বছরের ৫ জুন পরিপত্রটিকে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেয় উচ্চ আদালত।


মন্তব্য