পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে মহাসড়কে জাবি শিক্ষার্থীদের অবরোধ

জাবি
ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক  © টিবিএম

পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে এক দফা আদায়ে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি শুরু করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিকেল ৪ টার দিকে একটি মিছিল নিয়ে মহাসড়কে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম ও পুলিশ বাঁধা দিলেও তা উপেক্ষা করে মহাসড়কে অবস্থান নেন তারা। শিক্ষার্থীরা জানান, 'পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী বিকেল ৩টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ পালন করার কথা। এ কর্মসূচি পালন করেই ঘরে ফিরবেন তারা।'

পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মাহফুজ ইসলাম বলেন, আমরা সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ কোটা রেখে সংসদে আইন পাশ করার এক দফা নিয়ে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছি। আজও বিকেল ৩টা থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করার কথা ছিল। কিন্তু আমরা এসে দেখলাম মহাসড়কে পুলিশ, এপিসি কার আর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক অবরুদ্ধ। তবে আমরা কর্মসূচি পালন না করে হলে ফিরবো না। আরেক সংগঠক সোহাগী সামিয়া বলেন, ছাত্রসমাজ বায়ান্ন-একাতত্তরের চেতনা ভুলে যায় নাই। আজকে পুলিশ-প্রশাসনের বাঁধা উপেক্ষা করে মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি তার প্রমাণ। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চলবে।

এদিকে মহাসড়কে শতাধিক পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। তবে প্রথমদিকে মারমুখী থাকলেও শিক্ষার্থীদের অবস্থান নেওয়ার পর তাদেরকে সতর্ক অবস্থানে দেখা যায়। 

ঢাকা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অপস অ্যান্ড ট্রাফিক) আব্দুলাহিল কাফি গণমাধ্যমকে বলেন, এই মহাসড়ক অবরোধ করলে অসুস্থ মানুষ, রোগী ছাড়াও উত্তরবঙ্গগামী মানুষের ব্যাপক ভোগান্তি হয়। এসব ভোগন্তি এড়াতে মহাসড়ক অবরোধ না করার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ। কারণ আইনি ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হতে চাই না আমরা।

এর আগে, গতকাল আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ কোটা পুনর্বহালে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের উপর চার সপ্তাহের স্থিতাবস্থা দেয়। এ আদেশের পরও আইন পাশের মত নির্দেশনা না পেলে কর্মসূচি চালানোর ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা।


মন্তব্য