ঘনকুয়াশা কনকনে ঠাণ্ডা, অভাব কি ঠাণ্ডা বুঝে

তেঁতুলিয়া
  © সংগৃহীত

তেঁতুলিয়ায় সকাল ৬টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস সকাল ৯টায়  তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।শুক্রবার (২৬ জানুয়ারী) সকাল ৯ টায় তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসে এ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।এর আগে বৃহস্পতিবার  সকালে ৯ দশমিক ২ডিগ্রী বুধবার ৮ দশমিক ৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।বিষয়টি নিশ্চিত করে তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা মো.রাসেল শাহ্ বলেন,এ জেলায় মৃদু শৈত্য প্রবাহ সাথে বৃষ্টি ঝরা ঠান্ডা বয়ে যাচ্ছে।

সরেজমিনে দেখাযায়, শুক্রবার সকালে কুয়াশায় আচ্ছান্ন জনপদ, কনকনে ঠান্ডা বাতাস বইছে।তবে বেলা বাড়ার পর রোদ্র উঠার সম্ভাবনা রয়েছে।এদিকে ঠান্ডায় প্রতিনিয়ত কাজে বের হতে দেখা যায় কর্মজীবী মানুষদের এবং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গুলোতে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বাড়ছে । এতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা।

ভ্যান চালক শহিদুল ইসলাম, মানুষ দরকার ছাড়া বাড়ি থেকে বের হচ্ছেনা, দিনে দু'শত তিনশত টাকা ভাড়া মারি  এতে সংসার চালতে  খুবেি কষ্ট হচ্ছে।

রাজমিস্ত্রি জানান,সন্ধ্যার পর থেকে সকালে সূর্য না উঠা পর্যন্ত ঠান্ডায় হাত পা বাঁকা হয়ে আসছে।হিমালয় থেকে কনকনে ঠান্ডা বাতাস বয়ে আসায় এখানে শীতের প্রকোপ বেশি।তবে রোদ্রের তাপে স্বস্তি প্রকাশ করছেন তারা।


মন্তব্য