পরকীয়া প্রেমিককে রেখে স্বামীর সঙ্গে যেতে বলায় তরুণীর বিষ পান

ঝালকাঠি
  © ফাইল ছবি

পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যায় এক তরুণী। পরিবারের অভিযোগে প্রেমিকসহ তরুণীকে (২২) আটক করে নিয়ে আসা হয় থানায়। পুলিশ প্রেমিক শামীমকে (২৪) থানার হাজতখানায় রাখে। এরপর স্বামীর সঙ্গে ওই তরুণীকে যেতে বলায় ঝালকাঠি সদর থানায় পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় বিষ পান করেছেন ওই তরুণী।

আজ মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেলে ঝালকাঠি সদর থানায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ওই তরুণীকে দ্রুত ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নেয়। বর্তমানে ওই তরুণী সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

পুলিশ জানায়, ঝালকাঠি সদর উপজেলার একটি গ্রামে স্বামীর সঙ্গে বসবাস করেন ওই তরুণী। তাদের একটি শিশু সন্তানও রয়েছে। সম্প্রতি একই গ্রামের শামীম নামে এক যুবকের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন তিনি। একপর্যায়ে স্বামী ও সন্তান রেখে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যার তরুণী। এ ঘটনায় মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ করা হয়। পুলিশ প্রেমিক শামীম ও তরুণীকে সদর উপজেলার নথুল্লাবাদ এলাকা থেকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। 

থানায় নারী ও শিশু ডেস্কে রাখা হয় তরুণীকে, আর হাজতখানায় রাখা হয় শামীমকে। শামীমকে রেখে স্বামীর সঙ্গে যেতে ওই তরুণীকে পরিবার ও পুলিশ চাপ প্রয়োগ করে। এ সময় মেয়েটি তার সঙ্গে থাকা বিষের বোতল বের করে তা পান করেন। পুলিশ দ্রুত তাকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওয়াশ করে বিষ বের করে ফেলেন। এতে প্রাণে বেঁচে যান ওই তরুণী।  

ওই তরুণী বলেন, আমি শামীমকে ভালোবাসি। তার সঙ্গেই যেতে চাই। এ ছাড়া আমার আর কোনো কথা নেই। 

ঝালকাঠি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে শামীম নামে এক যুবক এবং ওই তরুণীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে থানার মধ্যে একটি দুর্ঘটনা ঘটে। ওই তরুণীকে ওয়াশ করে বিষ বের করে ফেলা হয়েছে। আপাতত সে সুস্থ আছে। এ ব্যাপারে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তথ্যসূত্র: ঢাকাপোস্ট


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ