মিয়ানমার থেকে গুলি এসে ফাটলো অটোরিকশা কাঁচ

মিয়ানমার-বাংলাদেশ
  © সংগৃহীত

মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সরকার বাহিনী ও বিদ্রোহী আরাকান আর্মিদের মধ্যে ক্ষণে ক্ষণে তুমুল লড়াই চলছে। মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তের কাছাকাছি মিয়ানমারের অভ্যন্তরে দুদিন গোলাগুলি বন্ধ থাকার পর আজ আবার শুরু হয়েছে। প্রচণ্ড গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। একটি গুলি সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে এসে পড়েছে। এতে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশার গ্লাস ভেঙে গেছে বলে খবর পাওয়া যায়।

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের তুমব্রু এলাকার উত্তরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

অটোরিকশাচালক আবু তাহের বলেন, ‘তুমব্রু উত্তরপাড়ায় যাত্রীর জন্য অপেক্ষা করছিলাম। এসময় হঠাৎ সীমান্তের ওপারে প্রচণ্ড গোলাগুলি আওয়াজ শোনা যায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই অটোরিকশায় একটি গুলি এসে পড়ে। এতে বড় ধরনের ক্ষতি না হলেও গুলি লেগে অটোরিকশার সামনের বড় গ্লাসটি ভেঙে গেছে।’

ঘুমধুম ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. আলম জানান, বিকেল থেকে আবারও মিয়ানমার সীমান্তে গোলাগুলি বিকট আওয়াজ শোনা যাচ্ছে।

এ বিষয়ে ঘুমধুম পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (আইসি) মাহাফুজ ইমতিয়াজ ভূঁইয়া বলেন, বিকেলে তুমব্রু এলাকায় গুলির আওয়াজ শোনা গেছে। তবে অটোরিকশা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কি না নিশ্চিত নই।

তবে সীমান্ত এলাকায় বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে বলে জানান তিনি। 

 উল্লেখ্য, এর আগেও জান্তা বাহিনী ও আরাকান আর্মির মধ্যে সংঘটিত সংঘর্ষে মর্টার শেল ও গুলি এসে পড়ে বাংলাদেশে। এতে বান্দরবানের স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, মিয়ানমারে সংঘর্ষে বাংলাদেশের সীমান্তে কড়াকড়ি করা হয়েছে। আমরা সর্বদা নজর রাখছি। 

এর আগে তিনি বলেছিলেন, আমরা আর একজন রোহিঙ্গাকেও আশ্রয় দেবো না।

তথ্যসূত্র: জাগো


মন্তব্য