ঝুঁকি নিয়ে কাঠের সেতুতে চলাচল করছে কয়েক গ্রামের মানুষ

মাদারীপুরে
  © সংগৃহীত

মাদারীপুরের ডাসারে একটি কাঠের সেতুর বেহাল দশার কারণে চরম ভোগান্তি আর ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে কয়েক গ্রামের মানুষ।বৃহস্পতিবার সরেজমিনে ডাসার উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নের শশিকর চৌমহনী গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে প্রায় একযুগ আগে নির্মিত সেতুটি লোহার খুটি হেলে পড়ার উপক্রম। সেতুটির উপর অংশের পাটাতনের কিছু কাঠ পঁচে ধসে পরেছে। সেতুটির উপরের নেই কোন রেলিং। যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম হওয়ায় সেতুটি দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে দেখাগেছে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের।

এছাড়া জীবিকার তাগিদে প্রতিদিন সোটরচালিত ভ্যান, অটোরিকশা, মোটরসাইকেলে ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করছেন স্থানীয়রা। জনসাধারণের চলাচলের একটি মাধ্যম সেতুটি এখন জনদুর্ভোগে রুপ নিয়েছে। সেতুটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানান এলাকাবাসী।

স্থানীয় বাসিন্দা সুজন মজুমদার জানান, ‘আমাদের শশিকরের চৌমুহনী ব্রিজটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। কাঠের ব্রিজটি হেলে গেছে। উপরের পাটাতনের কাঠ ধসে পড়েছে। যেকোনো সময় ব্রিজটি ভেঙে যেতে পারে। যাতায়াতের জন্য প্রতিদিন কাঠের  ব্রিজটি দিয়ে ঝুঁকি নিয়েই পারাপার হতে হচ্ছে। ব্রিজটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানাই।’

আরও পড়ুন: ইজতেমায় এসেও কনটেন্ট তৈরিতে ব্যস্ত ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’

নবগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দুলাল তালুকদার বলেন, ‘ব্রিজটি অনেক পুরোনো। উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছিল। বর্তমানে ব্রিজটির লোহার পিলার খালের মধ্যে নুয়ে পড়ছে। উপরের পাটাতনের কাঠও ঠিকমত নেই। গ্রামের হাজারো মানুষ ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে। নতুন একটি ব্রিজ দরকার। আমি সংশ্লিষ্ঠ দফতরে বিষয়টি জানিয়েছি। 

এ বিষয়ে উপজেলা এলইজিডির প্রকৌশলী মো. রেজাউল করিম বলেন, ইতোমধ্যে ব্রিজ নির্মাণের জন্য প্রকল্প তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। আশা করি দ্রুত প্রকল্প প্রস্তাবটি পাশ হয়ে আসবে।


মন্তব্য