নারীকে বিয়ের আসর থেকে অপহরণ, উদ্ধারে এসআইসহ ৪ পুলিশ আহত

সারাদেশ
  © সংগৃহীত

এক নারীকে মাগুরা জজ আদালতে বিয়ের আসর থেকে অপহরণ করা হয়।তাকে উদ্ধারে গিয়ে পুলিশের এসআইসহ ৪ সদস্য আহত হয়েছেন।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সদর উপজেলার আবালপুরের সোনালি ব্রিকস নামে একটি ইটভাটায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন মাগুরা সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাফিজ ও এরশাদ এবং সাইফুল ও ওমর নামে তিন কনস্টেবল।

জানা গেছে, সোমবার দুপুরে মাগুরা জেলা জজ আদালতে বিয়ের জন্য উপস্থিত হন সদরের ব্যাঙ্গা বেরইল গ্রামের মাসুরা খাতুন নামে এক নারী। আদালত থেকে কাশিনাথপুর গ্রামের জামির হোসেন তাকে অপহরণ করে উপজেলার আবালপুরের সোনালি ব্রিকস নামে একটি ইটভাটায় নিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ উদ্ধারের চেষ্টা করলে ইটভাটার শ্রমিকরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। তবে শেষ পর্যন্ত মাসুরাকে উদ্ধার করতে সমর্থ হয় পুলিশ।

অপহরণের শিকার মাসুরা খাতুন বলেন, প্রায় ১২ বছর আগে সদর উপজেলার দেড়ুয়া গ্রামের দুলাল মোল্যার ছেলে ফারুক মোল্যার সাথে আমার বিয়ে হয়। তবে তার নির্যাতনে অতিষ্ঠ গত চার বছর আগে আমাদের বিচ্ছেদ হয়। এখন আমার পরিবার নতুন করে বিয়ে ঠিক করলে ফারুক মোল্যা বাধা দেয়। সোমবার একইভাবে আমার পূর্বের স্বামীর ইন্ধনে জজ আদালতে বিয়ের আসর থেকে আমাকে তুলে নিয়ে ভাটায় আটকে রেখে মারধর করে। সেখানে আমার ছোট ভাই উপস্থিত হলে তাকেও মারাত্মকভাবে পিটিয়ে আহত করা হয়।

এ বিষয়ে মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. কলিমুল্লাহ বলেন, মাসুরা বেগম নামে এক নারীকে কিছু দুষ্কৃতকারী কোর্টের সামনে থেকে অপহরণ করে একটি ইটভাটায় নিয়ে যাওয়ার খবর এলে তাকে উদ্ধারের জন্য আমাদের টহল টিম সেখানে যায়। ভিকটিমকে উদ্ধারের একপর্যায়ে অপহরণকারীরা পুলিশ সদস্যদের হাত থেকে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে এবং একপর্যায়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়।

তিনি আরও বলেন, এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ