রাতের আধাঁরে মন্দিরের বটবৃক্ষ কর্তন, উদ্বিগ্ন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা

নরসিংদী
  © টিবিএম ফটো

নরসিংদীর রায়পুরায় রাতের আধাঁরে দূর্বৃত্তরা বটবৃক্ষ কর্থনে লিখিত অভিযোগ দেন। এ ঘটনার পর থেকে স্থানীয় সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উদ্বিগ্ন। বৃহস্পতিবার রাতে মন্দির পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে রায়পুরা থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। এর আগে বুধবার রাতে মির্জাপুর ইউনিয়নের পিরিজকান্দি ঠাকুরবাড়ি এলাকায় ভোলানাথ কালিমন্দিরে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে ওই দিন বিকেলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন থানার উপপরিদর্শক নবী হোসেন, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার বিশ্বাস ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত বিশ্বাস চন্দন ভোলানাথ কালিমন্দিরে সাধারণ সম্পাদক মৃদুল সূত্রধরসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 

স্থানীয় রানী সূত্রধরসহ আরও অনেকে জানান, শ্রী শ্রী ভোলানাথ কালিমন্দিরের পাশে বটবৃক্ষে নিয়মিত পূজা আর্চনা করে থাকি। বৃহস্পতিবার সকালে পূজা দিতে এসে দেখে রাতের আধাঁরে দূর্বৃত্তরা গাছসহ ডালপালা কেঁটে ফেলে রেখে গেছে। বটবৃক্ষে দেবদেবীরা বিশ্রাম নিয়ে থাকেন, নিয়মিত এখানে পূজা আর্চনায় দিয়ে থাকি। এমন কর্মকান্ডের সাথে জড়িতদের কঠিন শাস্তি দাবি করছি।

ভোলানাথ কালিমন্দিরের সভাপতি শংকর চন্দ্র সূত্রধর বলেন, মন্দিরের দায়িত্বে থাকা কাকি মা সকালে পূজা দিতে এসে দেখেন রাতের আধাঁরে দূর্বৃত্তরা বটবৃক্ষ কেটে ফেলে রাখে। এর আগেও দূর্বৃত্তরা এই মন্দিরের তালা বিনষ্ট করার চেষ্টা করে। টিউবওয়েল চুরি করে নিয়ে যায়। এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়াছিলো। সলকের দাবি কে বা কারা কি উদ্দেশ্যে এ কাজ গুলো করছে তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি দাবি করছি। 

উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার বিশ্বাস বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি। দুষ্কৃতকারীদের কোনো জাত ধর্ম দল নেই। প্রশাসনের নিকট আকুল আবেদন দ্রুত তাদেরকে চিহ্নিত করে আয়নাওতায়নে শাস্তি দাবী করছি।

রায়পুরা থানার উপপরিদর্শক নবী হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।


মন্তব্য