চীন থেকে আনা ৫০ লাগেজ বগি সৈয়দপুরে; যুক্ত হবে যাত্রীবাহী ট্রেনে

চীন
  © সংগৃহীত

চীন থেকে আনা ৫০টি লাগেজ ভ্যান (মালামাল পরিবহনকারী বগি) পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ২৮টি লাগেজ ভ্যান চলাচলের উপযোগী করে রেলের ট্রাফিক বিভাগে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকিগুলো পরীক্ষা ও যন্ত্রাংশ সংযোজনের (কমিশনিং) কাজ চলছে। এসব ভ্যান মালামাল পরিবহনের জন্য পশ্চিমাঞ্চলের আন্তনগর ট্রেনে (যাত্রীবাহী ট্রেনে) একটি করে সংযুক্ত হবে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার ক্যারেজ শপের প্রধান ইনচার্জ মোমিনুল ইসলাম। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘চীন থেকে আমদানি করা লাগেজ ভ্যানে মধ্যে সাধারণ ও শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত দুই ধরনের কোচ রয়েছে। কোচগুলো কারখানায় আনার পর সেগুলোতে প্রথমে কমিশনিং, স্ট্যাটিক টেস্ট ও ডায়নামিক টেস্টের পর ট্রাফিক বিভাগকে হস্তান্তর করা হয়।’ 

জানা যায়, কৃষিজাত পণ্য পরিবহন থেকে শুরু করে যাত্রীসেবার মান বৃদ্ধি, বিশেষ সুবিধাদি প্রদান ও রাজস্ব আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে চীন থেকে এসব লাগেজ ভ্যান আমদানি করা হয়। এর মধ্য ২০২৩ সালের ২ ডিসেম্বর প্রথম দফায় ১০টি পরে আরও চার দফায় মোট ৫০টি লাগেজ ভ্যান রেলওয়ে কারখানায় আনা হয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য। 

আজ শনিবার (০১ জুন) রেলওয়ে কারখানায় গিয়ে দেখা যায়, চীনা প্রকৌশলীরা কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের সঙ্গে নিয়ে লাগেজ ভ্যানের কোচগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন। মালামাল পরিবহনের জন্য লাগেজ ভ্যানগুলো বেশ আধুনিক। 

এ বিষয়ে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার কার্য ব্যবস্থাপক (ডব্লিউএম) শেখ হাসানুজ্জামান বলেন, ‘সৈয়দপুর কারখানায় আসা ৫০টির মধ্যে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ২৮টি লাগেজ ভ্যান চলাচলের উপযোগী করে রেলের ট্রাফিক বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বিশেষ করে এ অঞ্চলের কৃষিজাত পরিবহনের জন্য এসব লাগেজ ভ্যানগুলো আমদানি করা হয়েছে। এগুলো যাত্রীবাহী ট্রেনে যুক্ত করা হলে মালামাল পরিবহন যাত্রীদের সুবিধা হবে।’

তথ্যসূত্র: আজকের পত্রিকা


মন্তব্য