ভেতরে পোকা আছে বলে ছাত্রীর জামা খুলে ফেলেন শিক্ষক

পটুয়াখালী
  © সংগৃৃহীত

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে স্কুলের অফিস কক্ষে নিয়ে তৃতীয় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ মামলা হয়েছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। গতকাল শনিবার (১ জুন) রাতে রাঙ্গাবালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার (৩০ মে) উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের ২৬ নং চরলক্ষ্মী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবুল কাশেম মোসাদ্দেক বিল্লাহ ওরফে জাকির সরদারকে বিরুদ্ধে নিজ স্কুলের শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে এ মামলাটি হয়। মামলার পর থেকেই জাকির পলাতক রয়েছে।

মামলার এজাহারে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় ঘটনার দিন সকাল ১০টায় স্কুলে যায় ওই ছাত্রী। কোনো শিক্ষক না থাকার সুযোগে বেলা ১১ টায় শিশু শিক্ষার্থীকে অফিস কক্ষে (লাইব্রেরী) নিয়ে যায় প্রধান শিক্ষক জাকির। সেখানে নিয়ে প্রথমে ডান গালে চুমু দেয়। এ সময় শিশুটি বাধা দিলে শিশুটির গায়ের জামার ভেতরে পোকা আছে, তা ফেলে দেওয়ার কথা বলে জামা খুলে ফেলে। পরে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তখন শিশুটি চিৎকার দিলে মুখ চেপে ধরে এ কথা কাউকে না বলতে ভয়ভীতি দেখিয়ে ছেড়ে দেন।

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, এরআগেও প্রধান শিক্ষক জাকিরের বিরুদ্ধে এলাকায় একাধিক নারী কেলেঙ্কারির ঘটনা রয়েছে ।

রাঙ্গাবালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণচেষ্টার অপরাধে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তিনি পলাতক রয়েছে এবং তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


মন্তব্য