তালা ভেঙে অধ্যক্ষের কক্ষে ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের প্রবেশ, অতঃপর

নওগাঁ
  © সংগৃৃহীত

পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে এসে নওগাঁর মান্দায় অধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভেঙে প্রবেশের অভিযোগ উঠেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার গোটগাড়ী শহীদ মামুন সরকারি হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গোটগাড়ী শহীদ মামুন সরকারি হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মঙ্গলবার বাংলা দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা ছিল। পরীক্ষা চলাকালে বেলা ১১টার দিকে কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসারকে সঙ্গে নিয়ে ইউএনও লায়লা আনজুমান বানু ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শামীম রেজা কেন্দ্র পরিদর্শনে যান। তাঁরা অধ্যক্ষের কক্ষ বন্ধ দেখতে পান। এ সময় তাঁরা কক্ষের তালা ১০ মিনিটের মধ্যে খুলে দেওয়ার জন্য কেন্দ্রসচিব ও সহকারী প্রধান শিক্ষককে নির্দেশ দেন। তাঁরা খুলে দিতে না পারায় কক্ষের তালা ভেঙে ইউএনও, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ট্যাগ অফিসার কক্ষের ভেতরে প্রবেশ করেন।

কলেজের অধ্যক্ষ জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘আমার প্রতিষ্ঠানের সকল শ্রেণিকক্ষ পরীক্ষা গ্রহণের কাজে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। পরীক্ষার কোনো দায়িত্বে না থাকায় গত রোববার ও আজ মঙ্গলবার পরীক্ষা চলাকালে আমি প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত ছিলাম না। আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আমার অনুপস্থিতিতে ইউএনওর নির্দেশে আমার কক্ষের তালা ভাঙা হয়েছে। এ সময় একজন ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত ছিলেন। বিষয়টি আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।’

কেন্দ্রসচিব আব্দুস সালাম জানান, ম্যাজিস্ট্রেট শামীম রেজা উপস্থিত থেকে প্রতিষ্ঠানের একজন দপ্তরিকে দিয়ে তালাটি ভেঙে ফেলেন। পরে ওই কক্ষে কিছুক্ষণ অবস্থানের পর তাঁরা বেরিয়ে যান। এ সময় তিনিসহ প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য শিক্ষক-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

জানতে চাইলে ইউএনও লায়লা আঞ্জুমান বানু এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শামীম রেজা বলেন, ‘পরীক্ষা পরিচালনার কাজে ব্যবহারের জন্য অধ্যক্ষের কক্ষের তালা ভাঙা হয়েছে। এতে আইনের ব্যত্যয় ঘটেছে কি না, বলতে পারছি না।’


মন্তব্য