সেনাসহ সেন্টমার্টিনে আসা মিয়ানমারের ৩৩ জনকে পুশব্যাক

রোহিঙ্গা
  © বাংলাদেশ মোমেন্টস (ফাইল ছবি)

মিয়ানমারের মংডু এলাকায় দেশটির সামরিক জান্তা সরকার ও বিদ্রোহী আরাকান আর্মির সঙ্গে সংঘর্ষ বেড়েছে। এতে প্রাণভয়ে প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে পালিয়ে এসেছেন মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) দুই সদস্য ও ৩১ জন রোহিঙ্গা। তবে তাদেরকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) জনসংযোগ কর্মকতা মো. শরিফ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শুক্রবার (৫ জুলাই) ভোরে ওই ৩৩ জনকে নিয়ে একটি ট্রলার সেন্টমার্টিন দ্বীপের উত্তর গোলারচরের কাছাকাছি চলে আসে। ট্রলারে ১০ জন নারী, ১০ জন পুরুষ, ১১ জন শিশু এবং বিজিপির একজন ক্যাপ্টেন ও একজন সার্জেন্ট ছিলেন। বিষয়টি জানার পর স্থানীয়রা বিজিবি ও কোস্টগার্ডকে খবর দেয়।

শরিফ জানান, খবর পেয়ে সেন্টমার্টিন বিজিবি টহল টিম কাঠের নৌকা ও অনুপ্রবেশকারীদের নজরদারির মধ্যে রাখে। তবে তাদের দ্বীপে উঠতে দেওয়া হয়নি। শুক্রবার বিকেলে একই জায়গা দিয়ে সাগরপথে তাদের পুশব্যাক করা হয়েছে। 

এদিকে শুক্রবার দুপুরেও কক্সবাজারে টেকনাফ সীমান্তে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে আরাকান আর্মি ও সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষে মর্টার শেল ও ভারী গোলার বিকট শব্দ পাওয়া গেছে। এদিকে বাংলাদেশ সীমান্তে মানুষের আতঙ্ক আরও বেড়েছে।


মন্তব্য