হাওরে ডুবে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

হাওর
  © সংগৃহীত

গত কয়েকদিন ধরে সারাদেশে বৃষ্টিপাত বেড়েছে। এ অবস্থায় দেশের হাওর ও নদীগুলোতে পানি বাড়ছে। এরই মধ্যে কিশোরগঞ্জের হাওরে ঘুরতে এসে পানিতে নেমে নিখোঁজ হন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। নিখোঁজের ২১ ঘণ্টা পর ওই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

আজ শনিবার (০৬ জুলাই) দুপুর দুইটায় জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার হাসানপুর হাওরের পানিতে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে গতকাল শুক্রবার বিকেল পাঁচটায় জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার হাসানপুর ব্রিজ এলাকায় ট্রলার থেকে হাওরে নামলে পানিতে তলিয়ে যান তিনি।

জানা যায়, মারা যাওয়া ওই শিক্ষার্থীর নাম আবিদুর রহমান (২৩)। তিনি চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার মোবারকখীল গ্রামের হালদার খান চৌধুরীবাড়ির অধ্যাপক সারওয়ার জামান খানের ছেলে। ঢাকার উত্তরায় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ছিলেন আবিদুর রহমান।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কিশোরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক এনামুল হক।

তিনি বলেন, ‘নিহত শিক্ষার্থী আবিদুর রহমান ঢাকার উত্তরায় থেকে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতেন। সেখান থেকে নয়জন বন্ধু মিলে কিশোরগঞ্জে হাওরাঞ্চলে বেড়াতে আসেন। গতকাল শুক্রবার বিকেল পাঁচটায় জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার হাসানপুর ব্রিজ এলাকায় ট্রলার থেকে হাওরে নামলে পানিতে তলিয়ে যান তিনি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। দীর্ঘ ২১ ঘণ্টা পর আজ দুপুরে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে, মরদেহটি করিমগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়।’

করিমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, মরদেহ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ