কৃষক পর্যায়ে বেগুনের কেজি ১ টাকা ২৫ পয়সা; বাজারে এসে বেড়ে যায় কয়েক গুণ

বেগুন
  © ফাইল ছবি

হঠাৎ করেই কৃষক পর্যায়ে কমে গেছে বেগুনের দাম। কিশোরগঞ্জের হাওরে কৃষকের ক্ষেত থেকে ব্যবসায়ীরা গড়ে বেগুন কিনে আনছেন ৫০ টাকা মণে। এ হিসেবে কৃষক প্রতি কেজি বেগুনের দাম পাচ্ছেন মাত্র এক টাকা ২৫ পয়সা করে।

আজ বুধবার (২০ মার্চ) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কৃষকের ক্ষেতে, গ্রামের বাজারে ও জেলা শহরের খুচরা বাজার ঘুরে এ তথ্য পাওয়া যায়।

গ্রামের বাজারে মান ভেদে ভাগ করে বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৫ থেকে ১০ টাকা কেজিতে। জেলা শহরে এ বেগুন বিক্রি হচ্ছে আবার ১৫ থেকে ২০ টাকা কেজি করে। তবে ঢাকা শহরে এসে এসব বেগুনের দাম হয়ে যাচ্ছে মানভেদে ৬০ থেকে ৮০ টাকা পর্যন্ত।

ভোক্তারা জানান, রমজানে প্রতি বছরই আগুন লাগে বেগুনের বাজারে। ব্যতিক্রম ছিল না এবারও। সপ্তাহের শুরুতেও জাত ও মান ভেদে বেগুনের দাম ছিল ৬০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। তবে হঠাৎ করেই ধস নেমেছে বেগুনের বাজারে।

গতকাল সকালে করিমগঞ্জ উপজেলার মরিচখালি বাজারের কাঁচা মলে গিয়ে দেখা গেছে, বেগুন বিক্রি হচ্ছে পাঁচ থেকে ১০ টাকা কেজি দরে। বড় জাতের বেগুন আবার ১৫ টাকা কেজি করে দাম চাওয়া হচ্ছে। একই চিত্র এই উপজেলার গ্রামের বেশ কয়েকটা হাটেও।

মরিচখালি বাজারের এক কৃষক জানান, তিনি ১৭ শতক জমিতে এবার বেগুন চাষ করেছেন। শুরুতে কিছু বেগুনে ভালোই দাম পেয়েছেন। গত দুই দিনে দাম একেবারেই পড়ে গেছে।

তিনি আরও জানান, এ বাজারের দুজন পাইকারেরর কাছে বুধবার সকালে ক্ষেতে বসে ৫০ টাকা মণে ১০ মণ বেগুন বিক্রি করেছেন তিনি। বেগুনের টাকা নিতেই তার বাজারে আসা।

মরিচখালি বাজারের খুচরা সবজি-বিক্রেতারা জানান, দুদিন ধরে বাজারে বেগুনের সরবরাহ ব্যাপক হারে বেড়েছে। আশপাশের গ্রামের কৃষকেরা বস্তায় ভরে বেগুন নিয়ে আসছেন বাজারে। পাইকাররাও ক্ষেতে গিয়ে বেগুন নিয়ে আসছেন। কিন্তু বিপরীতে ক্রেতাদের মধ্যে বেগুনের চাহিদা কমে গেছে। তাই দাম পড়ে গেছে। এ অবস্থায় বিপাকে ব্যবসায়ী ও কৃষক।

আশতকা থেকে করিমগঞ্জ উপজেলা সদরে যাওয়ার পথে নিয়ামতপুর ইউনিয়নের রৌহা গ্রামে কথা হয় জেসি এগ্রোর মালিক এরশাদ উদ্দিনের সাথে। তিনি জানান, মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) তার গ্রামের এক কৃষক জমি থেকে বেগুন তুলে বিক্রি করতে পারছিলেন না। ফেলে দেয়ার অবস্থা। পরে তিনি দুই বস্তা বেগুন তার খামারের গরুকে খাওয়ানোর জন্য ১০০ টাকা দিয়ে নিয়ে আসেন।

তবে শুধু কিশোরগঞ্জেই নয় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলেই কমেছে বেগুনের দাম। ত কয়েক দিন ধরেই সরাসরি কৃষক বিক্রি করতে পারেন বগুড়ার বিভিন্ন উপজেলার এমন পাইকারি বাজারগুলোতে একেক দামে বিক্রি হচ্ছে বেগুন।

কোথাও ১ টাকা কেজি আবার কোথাও দুই থেকে আড়াই টাকা কেজি। বুধবার (২০ মার্চ) বগুড়ার সবজির মোকাম মহাস্থানহাটে বেগুন বিক্রি হয়েছে প্রকার এবং গুণমান ভেদে ৫০ থেকে ২৫০ টাকা মণ। তবে খুচরা বাজারে এখন পর্যন্ত বেগুন ১০ টাকা কেজির নিচে কোথাও বিক্রি হয়নি। বুধবার পর্যন্ত বগুড়া শহরের খুচরা বাজারগুলোতে প্রকার এবং গুণমান অনুযায়ী বেগুন বিক্রি হয়েছে ২০ টাকা থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে। শহরের খান্দার, কলোনী, ফতেহ আলী এবং রাজাবাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।


মন্তব্য