ঈদের আগে বাড়লো সোনার দাম

স্বর্ণ
  © ফাইল ছবি

গত কয়েক মাস ধরে দাম কমানো ও বাড়ানোর খেলায় নেমেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। এরই অংশ হিসেবে ফের দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে সংস্থাটি।

আজ মঙ্গলবার (১১ জুন) বাজুসের মূল্য নির্ধারণ ও মূল্য পর্যবেক্ষণ স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমানের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) স্বর্ণের দাম এক হাজার ৭৩ টাকা বাড়িয়ে নতুন মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ১৬ হাজার ৯৫৫ টাকা। এতো‌দিন ছিল ১ লাখ ১৫ হাজার ৮৮২ টাকা।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্থানীয় বাজারে তেজাবী স্বর্ণের দাম বেড়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় সোনার নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। যা আগামীকাল বুধবার থেকে কার্যকর হবে।

নতুন দাম অনুযায়ী, সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) স্বর্ণ ১ লাখ ১৬ হাজার ৯৫৫ টাকা, ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ১ লাখ ১১ হাজার ৬৩৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের ৯৫ হাজার ৬৯১ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণের দাম ৭৯ হাজার ১১৭ টাকায় বিক্রি করা হবে।

স্বর্ণের দাম বাড়ানো হ‌লেও অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে রূপার দাম। ক্যাটাগরি অনুযায়ী বর্তমানে ২২ ক্যারেটে প্রতি ভরি রুপার দাম দুই হাজার ১০০ টাকা, ২১ ক্যারেটের দাম দুই হাজার ৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের দাম এক হাজার ৭১৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির রুপার দাম এক হাজার ২৮৩ টাকা।

এদিকে ঈদের বাকি আছে আর মাত্র ৬ দিন। এর মধ্যেই স্বর্ণের দাম বাড়ানোয় ক্ষোভ জানিয়েছেন ক্রেতারা। 

মনোয়ার হোসেন নামের একজন বলেন, এবারের ঈদে বিয়ের জন্য মেয়ে দেখেছে পরিবার থেকে। আগামীকাল অফিস ছুটি হওয়ার পর ঈদসহ বিয়ের শপিং করবো ভেবেছিলাম। কিন্তু এর মধ্যেই স্বর্ণের দাম বাড়ানোর কথা শুনলাম। দুদিন পরপর এভাবে দাম বাড়ালে সাধারণ মানুষ কোথায় যাবে?

তিনি বাজুসের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে আরও বলেন, বাজুসের এমন সিদ্ধান্তকে ধিক্কার জানাই।

এর আগে, গত মে মাস থেকে কয়েক দফায় দাম বাড়ানো ও কমানোর খেলা খেলেছে বাজুস।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ