বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামে উত্থান; দেশের বাজারে বাড়তে পারে যেকোন সময়

স্বর্ণ
  © ফাইল ছবি

স্বর্ণের দামে অস্থিরতা বিরাজ করছে আন্তর্জাতিক বাজারে। বিশ্ববাজারে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মূল্যবান এই ধাতুটির দাম। কিছুটা কমার পর গত সপ্তাহে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দামে বড় উত্থান হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ইতোমধ্যে প্রায় ১০০ ডলার বেড়ে গেছে। এক সপ্তাহেই প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম বেড়েছে ৬৪ ডলারের ওপরে। শেষ কার্যদিবস শুক্রবারই বেড়েছে ৩৪ ডলার। এর ফলে দেশের বাজারেও যে কোনো মুহূর্তে স্বর্ণের দাম বাড়তে পারে।

গত সপ্তাহে বিশ্ববাজারে লেনদেনের শুরুতে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ছিল ২ হাজার ৩২৪ ডলারে। শেষ সপ্তাহে ২ হাজার ৩৯০ দশমিক ৭৭ ডলারে দাড়ায়। এতে সপ্তাহের ব্যবধানে স্বর্ণের দাম বেড়েছে ৬৪ দশমিক ৪৩ ডলার।

স্বর্ণের পাশাপাশি গত সপ্তাহে বিশ্ববাজারে রুপার দামও বেড়েছে। সপ্তাহের ব্যবধানে ৭ দশমিক ১৪ শতাংশ বেড়ে প্রতি আউন্স রুপার দাম দাঁড়িয়েছে ৩১ দশমিক ২১ ডলারে। এর মধ্যে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসেই বেড়েছে ২ দশমিক ৭৯ শতাংশ বা দশমিক ৮৪ ডলার।

বিশ্ববাজারের এ পরিস্থিতিতে বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন প্রাইসিং অ্যান্ড প্রাইস মনিটরিং কমিটি বৈঠক করে দেশের বাজারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

বাজুসের এক সদস্য বলেন, বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম যে হারে বেড়েছে, তাতে দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম সমন্বয় করা প্রয়োজন। স্বাভাবিকভাবেই স্বর্ণের দাম বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

দেশের বাজারে এর আগে স্বর্ণের দাম কমানো হয়। বাজুসের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বর্তমানে সব থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ হাজার ৭৩ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১৭ হাজার ২৮৮ টাকা। ২১ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ১ হাজার ২৭ টাকা কমিয়ে ১ লাখ ১১ হাজার ৯৫১ টাকা, ১৮ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম ৮৭৫ টাকা কমিয়ে ৯৫ হাজার ৯৬০ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির এক ভরি স্বর্ণের দাম ৭৭৩ টাকা কমিয়ে ৭৯ হাজার ৩৩৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়।
সূত্র: লাইভমিন্ট ডট কম


মন্তব্য