গাজার ২৫০ ছাত্রীকে শিক্ষা বৃত্তি দেবে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষা
  © সংগৃহীত

যুদ্ধবিধ্বস্ত গাজার ২৫০ জন ছাত্রীকে বৃত্তি দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশের চট্টগ্রামে অবস্থিত এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন (AUW)। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে এ বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বৃত্তির আওতায় শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বিনা খরচে পড়ালেখার সুযোগের পাশাপাশি দেওয়া হবে নিজ দেশ থেকে আসা ও যাওয়ার খরচ, ভ্রমণ, আবাসন, স্বাস্থ্যসেবাসহ মাসিক ভাতা। বৃত্তির জন্য ইতোমধ্যে শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পারফরম্যান্স এবং অন্যান্য যোগ্যতার ভিত্তিতে বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করেছে এইউডব্লিউ।

গত বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে আয়োজিত এক বৈঠকে জাতিসংঘে নিযুক্ত ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত রিয়াদ মনসুরকে বৃত্তির বিষয়টি জানান এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল আহমেদ। এ সময় কামাল আহমেদের এই উদ্যোগের প্রশংসা করেন রাষ্ট্রদূত। এসময় তিনি বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদেরকে দ্রুত গাজা থেকে চট্টগ্রামে AUW-এর ক্যাম্পাসে স্থানান্তরে তার সহায়তার আশ্বাস দেন।

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের সহকারী রেজিস্ট্রার তপু চৌধুরী বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত গাজার ২৫০ নারী শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়ার উদ্দেশ্যে ইতোমধ্যে প্রাথমিক বাছাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে।

মিয়ানমার, ইয়েমেন, সিরিয়াসহ যুদ্ধবিধ্বস্ত বিভিন্ন দেশের প্রায় ৮৫০ নারী শিক্ষার্থী এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনে পড়ালেখা করছেন। এর মধ্যে ৫৫০ জন আফগানিস্তানের। বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশের প্রায় ১ হাজার ৬০০ শিক্ষার্থী বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছেন। যার মধ্যে ৮৫ শতাংশের বেশি শিক্ষার্থী পূর্ণ অথবা আংশিক বৃত্তির আওতায়।

 


মন্তব্য