বিয়ে করছেন নায়িকা অধরা খান; হবু স্বামী নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার!

অধরা খান
  © ফাইল ছবি

ঢাকাই সিনেমার উঠতি নায়িকা অধরা খান। সিনেমার চেয়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার পদচারণা বেশি দেখতে পাওয়া যায়। যদিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কাল্যাণেই সিনেমায় সুযোগ পান তিনি। বছরের বেশির ভাগ সময়টাই বিদেশে কাটে দেশীয় চিত্রনায়িকা অধরা খানের। তার পোশাক, লাইফস্টাইল ও ভ্রমণ—সব কিছুতেই থাকে আভিজাত্যের ছোঁয়া।

জানা গেছে শিগগিরই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন লাস্যময়ী এই নায়িকা। স্বাভাবিকভাই অনেকের মনে প্রশ্ন আসতে পারে কেমন হবে তার হবু বর ও তার সম্পদের পরিমাণ? সম্প্রতি গণমাধ্যমকে হবু বরের সম্পদ ও ক্যারিয়ার সম্পর্কে জানিয়েছেন অধরা। তিনি বলেন, বছরে মিলিয়ন ডলার রোজগার করেন তার হবু বর, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১২ কোটি। এ ছাড়াও বাড়তি উপার্জনও আছে তার।

তার হবু স্বামী একজন নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার। ডলারে উপার্জন করেন। বছরে তা মিলিয়ন ছাড়ায়। তা ছাড়া বইও লিখেন অধরার হবু জীবনসঙ্গী। নেটওয়াকিংয়ের ওপর লেখা ওসব বই বিক্রি হয় ১৪৯৯ ডলার থেকে শুরু করে আরও অনেক বেশি দামে। তা ছাড়াও নামধারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাকে চুক্তিতে ডেকে নেয়। সেখান থেকেও আসে ভালো সম্মানী।

অধরার হবু স্বামীর নাম ফয়সাল খান। কানাডার টরেন্টোতে তার বসবাস। অধরা বলেন, চাহিদা অনুসারে সম্পর্কে জড়ানো উচিত। কেউ উচ্চাভিলাসী হলে তাকে তেমন পার্টনার খুঁজে নেওয়া প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে ফয়সালই তার জন্য উপযুক্ত সঙ্গী বলে জানিয়েছেন অধরা।

সবার সম্পর্কের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে অধরা বলেন, প্রত্যেকরই উচিত তার পার্টনারের সামর্থ্য অনুযায়ী চলা। তাকে উচ্চাকাঙ্ক্ষী না ভাবতেও অনুরোধ করেছেন নায়িকা।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ১৯ অক্টোবর তার প্রথম চলচ্চিত্র 'নায়ক' প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। চলচ্চিত্রটিতে তিনি বাপ্পি চৌধুরীর বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন। এর এক সপ্তাহ পর, ২০১৯ সালের ২৬ অক্টোবর তার অভিনীত দ্বিতীয় চলচ্চিত্র 'মাতাল' মুক্তি পায়। চলচ্চিত্রটিতে তিনি অভিনয় করেন সাইমন সাদিকের বিপরীতে। এরপর ২০২৩ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত 'চলচ্চিত্র সুলতানপুর'। 

 


মন্তব্য