ববির হাতে মারধরের শিকার পরিচালক! উত্তাল সিনেমাপাড়া!

ববি
  © সংগৃহীত

দীর্ঘদিন ধরে সিনেমার বাইরে ছিলেন অভিনেত্রী ইয়ামিন হক ববি। এক ভিডিওতে ঈদে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ময়ূরাক্ষী’ সিনেমার পরিচালক রাশিদ পলাশকে মারতে দেখা যায় চিত্রনায়িকা ইয়ামিন হক ববিকে!

যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনো মুখ খোলেননি নায়িকা-পরিচালক কেউই। তবে ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। এ নিয়ে মোটামুটি উত্তাল সিনেপাড়া। এমন একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার ব্যাপারে মন্তব্য করছেন না কেউই। যদিও সিনেমার নির্বাহী প্রযোজক ও পরিচালক শাহাদাত হোসেন লিটন বলেছেন, বিষয়টি জেনেছেন। পরিচালকের ওপরে পারিশ্রমিক নিয়েও না কি ববির ক্ষোভ ছিল।

তবে ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছেন, ময়ূরাক্ষী সিনেমাটি ঈদে মাত্র দুটি মাল্টিপ্লেক্সে রিলিজ হয়। মাত্র দুই হলে সিনেমা মুক্তি নিয়ে ক্ষিপ্ত ছিলেন নায়িকা ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্টরা। হল পাওয়ার ক্ষেত্রেও পরিচালক মিথ্যাচার করেছেন।

ববি অভিনীত বহু সিনেমা ঈদে শতাধিক বা তার কাছাকাছি হলে অতীতে মুক্তি পেয়েছে। এই সিনেমাটি ভিন্ন ঘরানার তবুও মাত্র ২ হলে সিনেমা মুক্তিতে পরিচালকের ওপরে চটেছেন সংশ্লিষ্টরা। কারণ হিসেবে জানা যায়, পরিচালক না কি সিঙ্গেল স্ক্রিনে সিনেমার মুক্তিতে আগ্রহী ছিলেন না। যদিও বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে।

জানা গেছে, ববির দৃশ্যও না কি অনেক জায়গাতে কেটে ফেলা হয়েছে। প্রজেক্টটি যেভাবে নির্মাণের কথা ছিল তা করতে পরিচালক ব্যর্থ হয়েছেন। এমন অবস্থায় দুপক্ষ কথা না বলা পর্যন্ত কিছুই স্পষ্টভাবে বোঝা যাচ্ছে না।

এদিকে সূত্রের খবর, ঈদে সিনেমাটি মুক্তির কয়েকদিন পর নায়িকার সঙ্গে পরিচালকের ওই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে।

তবে বিষয়টি নিয়ে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি বা বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতিতে কোনো অভিযোগ কারও পক্ষ থেকেই যায়নি। অভিযোগ পেলে দায়িত্বরতরা বিষয়টি আমলে নেবেন বলে জানান।

তবে একাধিক শিল্পী ও পরিচালক কালবেলাকে জানিয়েছেন, শিল্পী, পরিচালক বা প্রযোজনা সংস্থাগুলোর আরও প্রফেশনাল হওয়া উচিত। সবার লক্ষ্য থাকা উচিত ভালো সিনেমা নির্মাণের সহায়ক হওয়া। সেটি না হলে ইন্ডাস্ট্রি পিছিয়ে পড়বে।


মন্তব্য