আর অপেক্ষা করতে পারছি না; দীঘির পোস্ট ঘিরে রহস্য

দীঘি
  © সংগৃহীত

শিশুশিল্পী হিসেবে সিনেমায় পদার্পণ করেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। এতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন তিনি। বছরতিনেক আগে ‘তুমি আছ তুমি নেই’ ছবির মাধ্যমে চিত্রনায়িকা হিসেবেও তাঁর অভিষেক হয়েছে। যদিও সিনেমাটি ব্যবসাসফল হয়নি। সোমবার (১ জুলাই) রাতে সামাজিক মাধ্যমে অভিনেত্রীর একটি পোস্ট দেখে অবাক নেটিজেনরা। নেটদুনিয়াও রীতিমতো তোলপাড়। 

দীঘির সেই পোস্টে দেখা যায়, তাঁর অনামিকায় একটি আংটি। মেহেদী রাঙানো হাত। আর হাতের নিচে বিয়ের কার্ড! ক্যাপশনে অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘অপেক্ষা করতে পারছি না আর...! সবকিছুর জন্য আলহামদুলিল্লাহ।’

তারপর থেকেই দুইয়ে দুইয়ে চার মেলাতে শুরু করেন নেটিজেনরা। সবার মনে একটিই প্রশ্ন—‘বিয়ে করে ফেলেছেন দীঘি?’ আবার কেউ বলছেন, ‘বিয়ে নাকি অভিনয়?’

তবে সত্যিই কি বিয়ে করলেন দীঘি? খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এখনই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন না অভিনেত্রী। ফেসবুকের সেই পোস্টটি মূলত প্রমোশনাল। চুক্তিবদ্ধ হওয়া নতুন একটি সিনেমার প্রমোশনের উদ্দেশেই পোস্টটি দিয়েছেন দীঘি।

এ প্রসঙ্গে দীঘির বাবা অভিনেতা সুব্রত বলেন, ‘অনেকে যে রকম ভেবেছেন, বিষয়টি আসলে তা নয়। দীঘির নতুন একটি সিনেমা আসছে, সেটিরই প্রমোশনাল পোস্ট এটা।’

নতুন সিনেমা সম্পর্কে জানতে চাইলে সুব্রত বলেন, ‘আজ (২ জুলাই) সন্ধ্যায় ঘোষণা আসছে নতুন সিনেমাটির। তখনই কে পরিচালনা করছেন, দীঘির বিপরীতে কে আছেন—সেসব বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।’

প্রসঙ্গত, দীঘিকে সর্বশেষ দেখা গেছে ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ সিনেমায়। এতে তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ভূমিকায়। তাঁর বিপরীতে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের চরিত্রে ছিলেন আরিফিন শুভ।


মন্তব্য