লিবিয়ায় বন্যায় মৃতের সংখ্যা ৫,৩০০ ছাড়িয়েছে, নিখোঁজ ১০ হাজার

আন্তর্জাতিক
লিবিয়ায় বন্যা  © সংগৃৃহীত

ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েলের প্রভাবে সৃষ্ট নজিরবিহীন বন্যায় লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় শহর ডার্না পরিণত হয়েছে লাশের নগরীতে। সুনামির মতো ঢেউ ডার্না শহরটির বহু মানুষকে সাগরে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে বলে দাবি স্থানীয় প্রশাসনের। পাঁচ হাজার তিনশ' মানুষের প্রাণহানির পাশাপাশি এখনও নিখোঁজ ১০ হাজার।

রবিবার সৃষ্ট ভয়াবহ এই প্রাকৃতিক দুর্যোগে ডার্না থেকে পানি সরলেও রয়ে গেছে তাণ্ডবের চিহ্ন। পুরো শহর পরিণত হয়েছে ধংসস্তূপে। আকস্মিক বন্যায় পানির তোড়ে শহরের এক তৃতীয়াংশ অবকাঠামো ভেসে গেছে বলে দাবি স্থানীয় রেড ক্রিসেন্টের। এখনও পানির নিচে বেনগাজী, আল-মার্জসহ কয়েকটি শহর। বুধবার পর্যন্ত শনাক্ত করা গেছে মাত্র এক হাজার মানুষের মৃতদেহ। শনাক্ত হওয়া মরদেহগুলোর গণকবরের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ডার্নার রাস্তা ও বিভিন্ন ভবনের আশপাশে এখনও পড়ে আছে অসংখ্য লাশ। হতাহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা বাড়তে থাকায় উদ্ধারকাজে হিমশিম খাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবী দলগুলো।

এ অবস্থায় হতাহত ও ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় যোগ দিয়েছে মিশর, কাতারসহ কয়েকটি দেশের বাহিনী। যেকোন সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ইতালিসহ আরও কয়েকটি দেশ। সূত্র: সিবিএস নিউজ

এদিকে, লিবিয়ার বন্যাদুর্গত মানুষের জন্য ওষুধ ও শুকনো খাবারসহ ত্রাণ সামগ্রী পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ। দেশটির দুর্গত মানুষের জন্য বাংলাদেশও ওষুধ ও শুকনো খাবারসহ ত্রান সামগ্রী পাঠাচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন।

 


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ