আইসল্যান্ডে ১৪ ঘণ্টায় ৮০০ বার ভূমিকম্প অনুভূত, জরুরি অবস্থা জারি

আইসল্যান্ড
আইসল্যান্ডের আগ্নেয়গিরি  © ফাইল ছবি

ভূমিকম্পের দেশ বলা হয় ইউরোপের দেশ আইসল্যান্ডকে। দেশটিকে কেন ভূমিকম্পের দেশ বলা হয় এবার বুঝি তারই প্রমাণ মিলল। মাত্র ১৪ ঘণ্টার মধ্যে দেশটিতে ৮০০ বার ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটেছে। 

গতকাল শুক্রবার (১০ নভেম্বর) দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় রেইকানেস উপদ্বীপে একের পর এক ৮০০ বারের বেশি ভূমিকম্প ঘটে।

বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা করছেন, সম্ভবত অঞ্চলটির আশপাশের কোনো আগ্নেয়গিরি সক্রিয় হয়ে উঠছে এবং দ্রুতই এর উদ্গীরণ ঘটবে। 

আরও পড়ুন:- ইসরাইলের ওপর নিষেধাজ্ঞার আহ্বান স্প্যানিশ মন্ত্রীর

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, ৮ শতাধিকবার ভূমিকম্পের ঘটনার পরপরই অঞ্চলটিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দেশটির ডিপার্টমেন্ট অব সিভিল প্রোটেকশন অ্যান্ড ইমারজেন্সি ম্যানেজমেন্ট এই জরুরি অবস্থা জারি করেছে। 

ডিপার্টমেন্ট অব সিভিল প্রোটেকশন অ্যান্ড ইমারজেন্সি ম্যানেজমেন্ট এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আইসল্যান্ডের পুলিশ প্রধান...গ্রিন্দাভিকের উত্তরে সুন্ধনজুকাগিগারে তীব্র ভূমিকম্পের কারণে নাগরিক প্রতিরক্ষার জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন।’ বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘ধারাবাহিকভাবে যেসব ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে আসন্ন ভূমিকম্পগুলো তার চেয়েও বড় আকারের হতে পারে এবং আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতও হতে পারে।’ এই গ্রিন্দাভিকের কাছেই একটি আগ্নেয়গিরি রয়েছে। 
 
আইসল্যান্ডের আবহাওয়া বিভাগ (আইএমও) জানিয়েছে, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে এই অগ্নুৎপাত হতে পারে। সংস্থাটির তথ্য অনুসারে, গ্রিন্দাভিক গ্রামটিতে অন্তত ৪ হাজার লোকের বাস। এই গ্রামটি ভূমিকম্পগুলোর উপকেন্দ্র থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত। অগ্নুৎপাত শুরু হলে গ্রামটির লোকজনকে সরিয়ে নেওয়া হবে। 
 
আবহাওয়া বিভাগের তথ্য অনুসারে, এই ভূমিকম্পগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি শক্তিশালী ভূমিকম্পটি ছিল ৫ দশমিক ২ মাত্রার। আইএমও জানিয়েছে, অক্টোবরের শেষ দিক থেকে বর্তমান পর্যন্ত আইসল্যান্ডের ওই অঞ্চলে প্রায় ২৪ হাজার বার কম্পন অনুভূত হয়েছে। এবং এর মধ্যে কেবল শুক্রবার রাতেই ৮০০ বার ভূমিকম্প হয়েছে।

আইএমও আরও জানিয়েছে, এসব ভূমিকম্পগুলোর অধিকাংশের উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে পাঁচ কিলোমিটার গভীরে।

সূত্র: এএফপি, সিএনএন, দ্য গার্ডিয়ান, এনডিটিভি


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ