এ বছর চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে আছেন যারা

চাকরি
  © ফাইল ছবি

২০১৯ সালে সারবিশ্বে করোনা আঘাত হানার পর থেকে কর্মী ছাটাইয়ের প্রবণতা বেড়েছে। ২০২৪ সালেও এই প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই অ্যামাজন, মাইক্রোসফট, অ্যালফাবেটের মতো বিখ্যাত মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলো বড় পরিসরে কর্মী ছাঁটাই করছে। আর এটি ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, বছরজুড়ে চলতে পারে এই ছাঁটাইয়ের প্রবণতা। স্থানীয় সময় মঙ্গলবারও যুক্তরাষ্ট্রের আমেরিকাভিত্তিক বহুজাতিক কোম্পানি ইউনাইটেড পার্সেল সার্ভিস জানায়, তারা ১২ হাজার কর্মী ছাঁটাই করবে।

একটি প্রতিষ্ঠানের কারা এ বছর চাকরি হারাতে পারে তা নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ। প্রতিষ্ঠানটি মার্কিন অর্থনীতিবিদ, নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান, পরামর্শক সংস্থা এবং ক্যারিয়ার কোচদের সাক্ষাৎকার নিয়ে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছেন। 

চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে আছেন যাঁরা-

মধ্যম সারির কর্মী ও অফিসে থেকে যারা কাজ করেন না এ বছর তাঁদের চাকরি হারানোর ঝুঁকি দেখছেন বিশ্লেষকরা।
  
মার্কিন প্রতিষ্ঠান গ্লাসডোরের প্রধান অর্থনীতিবিদ ড্যানিয়েল ঝাও বলেন, কোম্পানিগুলো প্রায়ই ছাঁটাইয়ের জন্য মধ্যম সারির কর্মীদের টার্গেট করে। এছাড়া অফিস থেকে দূরে থাকা কর্মীদেরও ছাঁটাই করা সহজ।  যার সঙ্গে আপনার প্রতিদিন যোগাযোগ করতে হয় না তাঁদের বাদ দেওয়া সহজ।

পরামর্শ দাতা সংস্থা গার্টনারের ম্যানেজিং ভাইস প্রেসিডেন্ট জর্জ পেন বলেন, চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের ক্ষেত্রে দুটি বিষয় বিবেচনা করা হয়। কর্মীটি কী এখন ফার্মের জন্য অর্থ উপার্জন করছে?  কর্মীটি কি ভবিষ্যতে ফার্মের জন্য অর্থ উপার্জন করবে? যদি কেউ এ প্রশ্নের উত্তর হ্যাঁ দিতে না পারে তাহলে তাঁর সতর্ক থাকা উচিত।-ইন্ডিপেন্ডেন্ট


মন্তব্য