অর্থ সংকটে পাকিস্তানের বিমান সংস্থা বিক্রি হয়ে যাচ্ছে

পাকিস্তান
  © বিবিসি (ফাইল ছবি)

গত কয়েক বছর ধরে ব্যাপক অর্থ সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। ইমরান খান ক্ষমতায় আসার পর অর্থ সংকট সমাধানের উদ্যোগ নিলেও তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর আরও ব্যাপক অর্থসংকটে পড়েছে দেশটি। এবার অর্থ সংকটের কারণে পাকিস্তানের রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনস (পিআইএ) বিক্রি হয়ে যাচ্ছে। নির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আসার আগেই দেশের পতাকাবাহী এই সংস্থাটিকে বেসরকারি খাতে ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার।

আজ শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত এক মন্ত্রীর বরাত দিয়ে তথ্যটি নিশ্চিত করেছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

অর্থনৈতিক সংকটে ভুগতে থাকা পাকিস্তানের এই রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থাটি দীর্ঘদিন ধরেই নিয়মিত লোকসানে পরিচালিত হচ্ছিল। এরপরও দেশটির আগের সরকার এই সংস্থাটির সংস্কার বা বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে গত বছরের জুনে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) শর্তের আওতায় তৎকালীন সরকার এই প্রতিষ্ঠানটিকে বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছিল।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান কাজ দেশে নির্বাচন আয়োজন করা। কিন্তু আগস্টে বিদায়ী নির্বাচিত সরকার তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে আইএমএফের সঙ্গে ঋণ চুক্তি এগিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা দিয়ে যায়। তার সূত্র ধরেই, বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক সরকার পিআইএ বিক্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে।

পাকিস্তান সরকারের বেসরকারিকরণ বিষয়ক মন্ত্রী ফাওয়াদ হাসান রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ‘পিআইএ বিক্রির বিষয়টি নিশ্চিত করা সংক্রান্ত কার্যক্রম ৯৮ শতাংশই সমাধান হয়ে গেছে। বিষয়টি মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাওয়ার পর এক্সেল শিটে হিসাব-কিতাব করে বাকি ২ শতাংশও শেষ করা হবে।’

ফাওয়াদ হাসান বলেন, লেনদেন বিষয়ক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়ং পিআইএ বিক্রির পরিকল্পনাটি চূড়ান্ত করেছে। এই পরিকল্পনা নির্বাচনের পর বর্তমান প্রশাসনের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হবে। মন্ত্রিসভা টেন্ডারের মাধ্যমে বা সরকার থেকে সরকারি চুক্তির মাধ্যমে পিআইএ-এর শেয়ার বিক্রি করবে কি না তাও সিদ্ধান্ত নেবে।

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তার ঠিক সাত দিন আগে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান বিক্রির সিদ্ধান্ত কতটা যৌক্তিক এমন প্রশ্নে পাকিস্তানের এই মন্ত্রী বলেন, ‘মাত্র চার মাসে আমরা যা করেছি, তা অতীতের সরকারগুলো এক দশকেরও বেশি সময় ধরে করার চেষ্টা করছে, কিন্তু পারেনি। এখন আর পেছন ফিরে তাকানোর সুযোগ নেই।’

উল্লেখ, এর আগে অর্থনীতিকে বাঁচাতে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী কৃষিকাজ শুরু করে।


মন্তব্য