যুদ্ধের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে দুঃসংবাদ পেল ইসরায়েল

ইসরায়েল
  © সংগৃহীত

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল। জাপানে হিরোসিমা-নাগাসাকির পারমাণবিক বোমার চেয়েও কয়েক গুণ বিধ্বংসী বোমা ফেলেছে দখলদার বাহিনী। এসব বোমা ও অর্থ সাহায্য করছে দেশটির অন্ধ সমর্থক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তবে এবার যুক্তরাষ্ট্র থেকে বড় দুঃসংবাদ পেল ইসরায়েল। দেশটির জন্য বিপুল অর্থসহায়তার একটি প্রস্তাব বাতিল করেছে মার্কিন পার্লামেন্ট। মঙ্গলবার কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে (হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস) এ প্রস্তাব বাতিল করা হয়। 

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। এছাড়া বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনেও একই তথ্য জানানো হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, মঙ্গলবার নিম্নকক্ষে রিপাবলিকান পার্টি ইসরায়েলকে ১৭ দশমিক ছয় বিলিয়ন ডলার অর্থ সহায়তার প্রস্তাব উত্থাপন করে। এরপর প্রতিনিধি পরিষদের ২৫০ সদস্য এটির বিপক্ষে ভোট দেন। অন্যদিকে এটির পক্ষে ভোট দেন ১৮০ জন সদস্য।

ভোটাভুটির পর স্পিকার মাইক জনসন বলেন, এই বিল আনার জন্য এখন সঠিক সময় নয়। ডেমোক্র্যাট পার্টির অন্যতম জ্যেষ্ঠ নেতা ও এমপি রোজা ডিলাউরো এ ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। এখন ইসরায়েলকে সহায়তা দিলে যুক্তরাষ্ট্রের অনেক মিত্রদের কাছে বিষয়টি নেতিবাচক হবে বলেও মনে করেন তিনি।

তিনি বলেন, এটি ঠিক যে, আমদের গুরুত্বপূর্ণ মিত্র নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষায় সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে। তবে আমাদের অন্য মিত্র ও শত্রুরা আমাদের পদক্ষেপ নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

অন্যদিকে রিপাবলিকান পার্টির এমপি কেন ক্যালভার্ট বলেন, ইসরায়েল মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন মিত্রদের মধ্যে অন্যতম নিকটতম। তাদের প্রয়োজনের সময় আমাদের পাশে থাকা উচিত।

যুক্তরাষ্ট্রের নিয়মানুসারে প্রেসিডেন্ট কোনো দেশকে অর্থ বা সামরিক সহায়তা দিতে চাইলে সেটির প্রস্তাবনা কংগ্রেসে লিখিত আকারে পাঠাতে হয়। এরপর আইনপ্রণেতারা বিষয়টি পর্যালোচনা করে সম্মতি বা আপত্তি জানান। তাদের আপত্তি থাকলে কংগ্রেসে ওই প্রস্তাবনা বাতিল হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় হামলা শুরু করে ইসরায়েল। দেশটির সেনাদের এ হামলায় ২৭ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামীদের সংগঠন হামাসের পাল্টা হামলায় ইসরায়েলের এক হাজার ২০০ লোক নিহত হয়েছেন।

যুদ্ধের শুরু থেকে একের পর এক ইসরায়েলকে অর্থ ও সামরিক সহায়তা দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। এমনকি অভিযোগ রয়েছে, ইউক্রেনের জন্য প্রস্তুত রাখা অনেক অস্ত্রও জরুরিভাবে ইসরায়েলকে সহায়তা হিসেবে দিয়েছে দেশটি।

এর আগে গত ডিসেম্বরের শেষদিকে কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে ইসরায়েলকে ১৪ কোটি ৭৫ লাখ ডলারের সমরাস্ত্র বরাদ্দ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ওই সময়ে মার্কিন কংগ্রেসের অধিবেশন শেষে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিংকেন এ তথ্য জানান।

এরও আগে গত ৯ ডিসেম্বর ইসরায়েলের ট্যাংকে ব্যবহারের জন্য জরুরি সহায়তা দিয়েছিলেন জো বাইডেন। ওই সময়ে দেশটিকে ১০ কোটি ৬০ লাখ ডলারের বেশি মূল্যের ১৪ হাজার গোলা সহায়তা দেওয়া হয়।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ