আরোহীরা এভারেস্টে মল ত্যাগ করলে নিতে হবে সঙ্গে করে, নতুন নির্দেশনা 

আন্তর্জাতিক
  © ফাইল ফটো

নেপাল কর্তৃপক্ষ এভারেস্টের পরিবেশ পরিষ্কার রাখাতে নতুন নির্দেশনা জারি করেছে। নির্দেশণায় বলা হয়েছে, এভারেস্টে যারা মলত্যাগ করবেন- সেগুলো সঙ্গে করে নিয়ে বেজ ক্যাম্পে আসতে হবে।

মাউন্ট এভারেস্টটি নেপালের প্রত্যন্ত পাসাং লামু পৌরসভা এ নির্দেশনা জারি করেছে। পাসাং লামু পৌরসভার চেয়ারম্যান মিংমা শেরপা ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে বলেছেন, ‘আমাদের পাহাড়গুলো দুর্গন্ধযুক্ত হওয়া শুরু হয়েছে।’

তিনি বলেন, আমরা অভিযোগ পাচ্ছি মানুষের মলমূত্র পাথরের ওপর দেখা যাচ্ছে এবং কিছু পর্বতারোহী অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। এটি গ্রহণযোগ্য নয় এবং বিষয়টি আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে।

যারা মাউন্ট এভারেস্ট এবং পার্শ্ববর্তী মাউন্ট লোটসে উঠবেন তাদের বেজ ক্যাম্প থেকে ‘পায়খানার ব্যাগ’ নামের একটি বিশেষ ব্যাগ কিনতে হবে। যখন তারা ফিরে আসবেন তখন সেই ব্যাগ চেক করা হবে।

এভারেস্টের চূড়ায় ওঠার সময় পর্বতারোহীরা বেশিরভাগ সময় কাটান বেজ ক্যাম্পে। সেখানে আলাদা টয়লেট রয়েছে। বেজ ক্যাম্পের মলগুলো নিচে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা আছে।

কিন্তু পর্বতারোহীরা যখন উপরে উঠতে শুরু করেন তখন তুষার তত কমতে থাকে। ফলে তখন গর্ত করার সুযোগও থাকে না। বাধ্য হয়ে তখন উন্মুক্ত স্থানে তাদের মলত্যাগ করতে হয়।

উল্লেখ্য, পাহাড়ের আবহাওয়া এবং উচ্চতার সঙ্গে শরীরকে মানিয়ে নিতে বেশ কিছু দিন বেসক্যাম্পে থাকতে হয় পর্বতারোহীদের। সেখানেই তাঁবু খাটিয়ে আলাদা শৌচাগারের ব্যবস্থা করা হয়। সেই শৌচাগারের সঙ্গে থাকে ব্যারেল। যার মধ্যে বর্জ্য জমা হয়। শৃঙ্গে ওঠার সময়ে যাত্রাপথে মল কিংবা মূত্রত্যাগের প্রয়োজন পড়লে তখন বেসক্যাম্পের শৌচাগারে ফিরে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই অপেক্ষাকৃত কম বরফ যেখানে, সেখানেই গর্ত করে প্রাকৃতিক ক্রিয়াকলাপ সারতে হয়। তাপমাত্রার কারণে সেই সব বর্জ্য মাটির সঙ্গে মিশতে পারে না। বরফ চুঁইয়ে পড়া জলের সঙ্গে মিশে তা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে দূষণ বাড়ছে।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ