১৪ বছরের কম বয়সীরা সামাজিকমাধ্যম ব্যবহার করতে পারবে না 

যুক্তরাষ্ট্রে
  © ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে ১৪ বছরের কম বয়সী শিশুদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার নিষিদ্ধ হচ্ছে। সোমবার (২৫ মার্চ) এ সম্পর্কিত একটি বিলে স্বাক্ষর করেছেন রাজ্যটির গভর্নর রন ডিস্যান্টিস। খবর রয়টার্সের।

বিল অনুযায়ী, ১৪ বছরের কম বয়সী কোনো শিশু সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করতে পারবে না। আর ১৪ থেকে ১৫ বছরে বয়সীদের যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারের জন্য বাবা-মার অনুমতির প্রয়োজন হবে। মূলত অনলাইন ঝুঁকি ও মানসিক স্বাস্থ্যের সুরক্ষা দেয়ার জন্য এ বিল পাস হয়েছে।

গর্ভনরের স্বাক্ষরিত এ বিল অনুযায়ী, ১৪ বছরের কম বয়সী যাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অ্যাকাউন্ট আছে তা মুছে ফেলা হবে। আর ১৬ বছরের কম বয়সী যাদের অ্যাকাউন্ট আছে, অথচ মাতা-পিতার অনুমতি নেই তাদেরকে থার্ড পার্টি ভ্যারিফিকেশন করতে হবে।
 
চলতি সপ্তাহের ফেব্রুয়ারিতে রাজ্যের রিপাবলিকান নেতৃত্বাধীন আইনসভা একটি বিল পাস করেছিল; যা ১৬ বছরের কম বয়সী শিশুদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করবে। তবে সেই বিলের ভেটো দিয়েছিলেন ডিস্যান্টিস। তিনি বলেছিলেন, এই বিল অভিভাবকের অধিকার সীমিত করেছে।
 
বিলের সংশোধিত সংস্করণে ১৪ থেকে ১৫ বছর বয়সী শিশুদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারে অভিভাবকের অনুমতির বিষয়টি উল্লেখ আছে। আগামী ১ জুলাই থেকে আইনটি কার্যকর হবে।
 
রন ডিস্যান্টিস এক বিবৃতিতে বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অনেকভাবে শিশুদের ক্ষতি করে। এ আইন অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের রক্ষা করার বড় ধরণের ক্ষমতা ‍দিয়েছি।
 
তবে সমালোচকরা বলছেন, বিলটি বাক স্বাধীনতার জন্য মার্কিন সংবিধানের প্রথম সংশোধনী সুরক্ষা লঙ্ঘন করেছে। সরকার নয়; অভিভাবকদেরই তাদের সন্তানের অনলাইন ব্যবহার নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত।


মন্তব্য