বাংলাদেশে নিজেদের পণ্য বর্জনের ডাক প্রসঙ্গে যা বলল ভারত 

ভারত
দিল্লির সাউথ ব্লক, যেখানে অবস্থিত ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়  © ফাইল ছবি

বাংলাদেশে গত প্রায় মাস তিনেক ধরে 'ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক' দিয়ে প্রচারণা চলছে, তা নিয়ে নিজেদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ভারত সরকার। বৃহস্পতিবার (০৪ এপ্রিল) দিল্লিতে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রণধীর জয়সওয়াল এক প্রশ্নের উত্তরে আই প্রসঙ্গে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেন।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জানান, বাংলাদেশে ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দুই দেশের সম্পর্কের গভীরতা নষ্ট করতে পারবে না। দুই দেশের সম্পর্কের ব্যাপ্তি সর্বগামী, এই সম্পর্ক এমনই থাকবে। 

ব্রিফিংয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্ন করেন, ‘বাংলাদেশে গত বেশ কিছু দিন ধরে তথাকথিত ‘ইন্ডিয়া আউট’ নামে একটি ক্যাম্পেইন চলছে, যাতে মূলত ভারতের পণ্য বয়কট করার ডাক দেয়া হচ্ছে। সে দেশের উল্লেখযোগ্য কয়েকজন বিরোধী নেতাও সেটাতে তাদের সমর্থন জানিয়েছেন। আপনি কি এই আন্দোলন নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাইবেন? আর দ্বিতীয়ত, এর ফলে বাংলাদেশে ভারতের রফতানির পরিমাণে কি কোনও প্রভাব পড়ছে?’

এ প্রশ্নের জবাবে রণধীর জয়সওয়াল বলেন, ‘দেখুন, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার সম্পর্ক আসলে খুব শক্তিশালী ও গভীর একটি সম্পর্ক। আমাদের দুই দেশের মধ্যে আসলে একটি কম্প্রিহেনসিভ পার্টনারশিপ (সর্বাত্মক অংশীদারি) আছে, যা বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিস্তৃত। অর্থনীতি থেকে শুরু করে বাণিজ্য, বিনিয়োগ থেকে শুরু করে উন্নয়ন সহযোগিতা, কানেক্টিভিটি থেকে শুরু করে পিপল-টু-পিপল কনট্যাক্ট– মানবজীবনের যেকোনও ক্ষেত্রে আপনি যেকোনও একটা বিষয়ের নাম করুন, দেখবেন সেটা কিন্তু ভারত-বাংলাদেশের সামগ্রিক সম্পর্কের অংশ। আমাদের দুই দেশের অংশীদারিত্ব ঠিক এতটাই প্রাণবন্ত। আর এই ধারা আগামী দিনেও অব্যাহত থাকবে।’

তবে ওই প্রচারণার কোনও প্রভাব বাংলাদেশে ভারতের রফতানি বাণিজ্যে পড়ছে কিনা, সেই নির্দিষ্ট কোনও প্রশ্নের জবাব তিনি দেননি।


মন্তব্য