আফগানিস্তানে বন্যায় একদিনেই ২০০ জনের মৃত্যু

আফগানিস্তান
  © সংগৃহীত

আকস্মিক বন্যার কবলে পড়েছে আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় বাঘলান প্রদেশ। এতে একদিনে দুইশরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা (আইওএম) বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে, গেলো কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিপাতে দেশটি উত্তরাঞ্চলীয় বাঘলান প্রদেশের পাঁচটি জেলায় ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। এ বন্যায় কয়েক হাজার বাড়িঘর ধ্বংস হয়েছে এবং ইতোমধ্যে ২০০ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আরও হতাহতের শঙ্কা রয়েছে।

শুধুমাত্র বাগলানি জাদিদ বিভাগে ১ হাজার ৫০০ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত বা ধ্বংস হয়ে গেছে এবং ১০০ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে আফগানিস্তানের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ।

তবে তালেবান সরকারের পক্ষ থেকে ৬২ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

আফগানিস্তানের আরও কয়েকটি প্রদেশে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে এভাবে আকস্মিক বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। দেশটির সরকার জানিয়েছে শনিবার উত্তরাঞ্চলের তাকহার প্রদেশে বন্যায় ২০ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

শুক্রবারের বৃষ্টিতে বাদাকশান প্রদেশ, মধ্যাঞ্চলের ঘোর প্রদেশ এবং পশ্চিমাঞ্চলের হেরাতেও বিভিন্ন অবকাঠামো ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

আফগানিস্তানে গত শীত মৌসুমটি শুষ্ক ছিল। ফলে সেখানে যে পরিমাণ বৃষ্টি হচ্ছে এ বৃষ্টি মাটি শুষে নিতে পারছে না। দেশটি জলবায়ু পরিবর্তনের ব্যাপক হুমকিতে ছিল। যার ফলাফল এখন বাস্তবে দেখা যাচ্ছে।

বিজ্ঞানীদের মতে, এমন বড় প্রাকৃতিক বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য দেশটি প্রস্তুত নয়। গত চার দশক আফগানিস্তানে যুদ্ধ-বিগ্রহ লেগে ছিল। এ কারণে দেশটির অর্থনীতি অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেকটাই দুর্বল।

খাদ্য ও ত্রাণ সরবরাহের পাশাপাশি নিখোঁজদের সন্ধানে উদ্ধারকর্মীরা অভিযান চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। উদ্ধার অভিযানে যোগ দিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী এবং পুলিশ বিভাগ।  

এদিকে বন্যার মধ্যেই শুক্রবার রাতে ওই অঞ্চলে আরও দুটি ঝড়ের পূর্বাভাসের দেয়া হয়েছে। এতে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

সূত্র: এনডিটিভি


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ