আজ ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিচ্ছে ইউরোপের সেই ৩ দেশ

ফিলিস্তিন
  © ফাইল ছবি

গত বছরের ৭ মে থেকে ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজায় নৃশংস হামলা চালিয়ে যাচ্ছে দখলদার ইসরায়েল। তাদের বর্বর হামলায় উপত্যকাটিতে এখন পর্যন্ত ৩৬ হাজারের অধিক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। যাদের মধ্যে অধিকাংশই নারী ও শিশু। ভয়াবহ ও মর্মান্তিক এসব হামলা প্রত্যক্ষ করে শিউরে উঠেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। তাই ইসরায়েল-ফিলিস্তিনি সংঘাত নিরসনের পথ খুঁজছে এসব দেশগুলো। ফিলিস্তিনকে স্বাধীনতা দেওয়ার মাধ্যমে এই সমস্যা সমাধান হতে পারে বলে মনে করেন অনেক দেশ। এরই অংশ হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ নতুন করে ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। কয়েকটি রাষ্ট্র ইতোমধ্যেই ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিয়েছে। 

আজ ফিলিস্তিনকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে ইউরোপের তিন দেশ স্পেন, আয়ারল্যান্ড এবং নরওয়ে। যদিও এ বিষয়ে ঘোর আপত্তি জানিয়েছিল ইসরায়েল। 

এর আগে, ২২ মে দেশ তিনটি ঘোষণা দেয়, ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেবে তারা। মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানই সবচেয়ে সেরা উপায় উল্লেখ করে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান দেশ তিনটির প্রধানমন্ত্রী। সেদিনই বলা হয়েছিল, ২৮ মে আনুষ্ঠানিকভাবে ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেয়ার কথা।

দেশ তিনটির এই ঘোষণায় ক্ষুব্ধ ইসরায়েল। এ সিদ্ধান্তকে ভুল পদক্ষেপ আখ্যা দিয়ে তেল আবিব বলে, এতে অস্থিতিশীলতা আরও বাড়বে। আর ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়ারল্যান্ড ও নরওয়েতে নিযুক্ত ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূতদের অবিলম্বে ইসরায়েলে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেন। 

গাজায় হামলার জেরে ইসরায়েলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া নিয়ে প্রথমবার আলোচনা করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। নিজের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য নেতানিয়াহু আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের বিরুদ্ধে ইহুদি বিদ্বেষের মিথ্যা দাবি করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন সংস্থাটির শীর্ষ কূটনীতিক জোসেফ বোরেল।

ইইউ শীর্ষ কূটনীতিক জোসেফ বোরেল বলেন, ‘আইসিজের নির্দেশের পরও রাফার বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা প্রমাণ করে যে গাজার কোন স্থানই নিরাপদ না। গাজার বাসিন্দারা যেন উপত্যকায় প্রবেশ করতে ও বের হতে পারে সেজন্য রাফা সীমান্ত পুনরায় সক্রিয় করতে ইইউকে হস্তক্ষেপ করতে হবে।’

এদিকে, গাজায় এ পর্যন্ত প্রাণহানি ছাড়িয়েছে ৩৬ হাজার। রাফার হামলা নিয়ে আলোচনা করতে মঙ্গলবার জরুরি বৈঠক করতে যাচ্ছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ।


মন্তব্য