দিল্লির মসনদের পথে কে এগিয়ে কে পিছিয়ে?

ভারতে
  © সংগৃহীত

ভারতে লোকসভা নির্বাচনে ভোট গণনা চলছে। কোনো কোনো আসনে প্রার্থীরা কখনো এগিয়ে যাচ্ছেন তো কিছুক্ষণ পর প্রতিপক্ষের কাছে পিছিয়ে পড়ছেন। গণনা শুরু হওয়ার তিন ঘণ্টা পর তাই প্রভাবশালী প্রার্থীদের বেলাতে কে জিততে চলেছেন তা নিশ্চিত করে বলা কঠিন।

তবে বুথফেরত জরিপে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের যে জয়জয়কারের কথা বলা হয়েছিল, পরিস্থিতি যে সেদিকে যাচ্ছে না সেটা বলা যায়। এ পর্যন্ত পোস্টাল ব্যালট এবং ইভিএমের ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, কংগ্রেস ও তাদের জোট ইন্ডিয়া তুলনামূলক ভালো অবস্থান ধরে রাখতে পেরেছে।

ইন্ডিয়া টুডের গণনা অনুযায়ী, ভোট গণনা শুরু হওয়ার পর প্রথম তিন ঘণ্টায় যে ফলাফল পাওয়া গেছে তাতে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ২৯০টি আসনে এগিয়ে আছে। কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ‘ইন্ডিয়া’ জোট এগিয়ে ২৩০টি আসনে। অন্যান্যরা এগিয়ে ২৩টি আসনে।

ভারতীয় সময় দুপুরের পর থেকে ফলাফল কোন দিকে যাচ্ছে তার চিত্র স্পষ্ট হয়ে উঠবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে কয়েকটি আসনে ভোটের ফলাফল আসতে দেরি হতে পারে, এমনকি আগামীকাল পর্যন্ত তা গড়াতে পারে।

ভারতের উত্তর প্রদেশের বারানসিতে দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এগিয়ে রয়েছেন। তবে শুরুর দিকে পিটিআইয়ের এক্স পোস্টে কংগ্রেসের কাছে মোদির ৬২২৩ ভোটে পিছিয়ে থাকার খবর জানানো হয়। পরে আবার দ্য হিন্দু ও টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে মোদি এগিয়ে গেছেন বলে জানানো হয়।

এদিকে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী লোকসভার রায়বেরেলি ও ওয়েনাড আসনে এগিয়ে আছেন।রায়বেরেলি আসনটি উত্তর প্রদেশে অবস্থিত। আর ওয়েনাড আসনটি অবস্থিত কেরালায়। গুজরাট রাজ্যে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বড় ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। সকাল পৌনে ১০টার তথ্য অনুযায়ী, ভোট গণনার প্রাথমিক পর্যায়ে ২১ হাজার ৬৭৪ ভোটে এগিয়ে ছিলেন অমিত শাহ। আসনটিতে কংগ্রেসের প্রার্থী সোনাল প্যাটেল। তিরুঅনন্তপুরমে পিছিয়ে আছেন কংগ্রেস প্রার্থী শশী তারুর। জম্মু ও কাশ্মীরের বরামুল্লায় পিছিয়ে আছেন ওমর আবদুল্লা। বহরমপুরে পিছিয়ে ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠান। ডায়মন্ড হারবারে ২ লক্ষের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শ্রীরামপুরে ৫৬ হাজার ভোটে এগিয়ে রয়েছেন তৃণমূলের কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। কৃষ্ণনগরে ৬ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র। দুর্গাপুর-বর্ধমানে এগিয়ে বিজেপি-র দিলীপ ঘোষ।

নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে চলচ্চিত্রজগতের যেসব অভিনেতা-অভিনেত্রী প্রার্থী হয়েছিলেন, তাদের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস-সমর্থিত প্রার্থীরাই বেশি এগিয়ে। এর মধ্যে আছেন অভিনেতা দেব, শতাব্দী রায় ও সায়নী ঘোষ। অবশ্য এই দলের প্রার্থী ‘দিদি নম্বর ১’-খ্যাত রচনা ব্যানার্জি পিছিয়ে আছেন। আবার তৃণমূলেরই প্রার্থী জুন মালিয়া পিছিয়ে আছেন। এগিয়ে বিজেপির তারকা প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়।


মন্তব্য