‘হেঁটে বেড়ানো গাছ’ জিতলো সেরা বৃক্ষের পুরস্কার

আন্তর্জাতিক
  © গ্যারেথ অ্যান্ড্রুজ

হঠাৎ দেখলে মনে হতে পারে লম্বা লম্বা পা ফেলে মাঠ ধরে এগিয়ে যাচ্ছে গাছ। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও গল্পটি ‘ওয়াকিং ট্রি’ নামে পরিচিত একটি বৃক্ষের। নিউজিল্যান্ডের বছরের সেরা গাছ বা ‘ট্রি অব দ্য ইয়ার’ প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছে এটি।

 ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

নিউজিল্যান্ড আরবরিকালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে হয় প্রতিযোগিতাটি। নর্দার্ন রাতা জাতের এই গাছটির লর্ড অব দ্য রিংস চলচ্চিত্রের এন্টদের সঙ্গে দেখতে বেশ মিল পাবেন। গাছটির ‘হেঁটে বেড়ানো গাছ’ বা ‘ওয়াকিং ট্রি’ নাম পেতে ভূমিকা রেখেছে এই এন্টরা। চলচ্চিত্রের এন্টরা দেখতে গাছের মতোই।

৩২ মিটার বা ১০৫ ফুট লম্বা গাছটির দেখা পাবেন সাউথ আইল্যান্ডের পশ্চিম উপকূলে কারামিয়ার কাছে। তৃতীয়বারের মতো হওয়া এই বার্ষিক প্রতিযোগিতায় শতকরা ৪২ শতাংশ ভোট পেয়ে অন্য জনপ্রিয় গাছগুলোকে অনায়াসে পেছনে ফেলে। এর মধ্যে আছে দেশটির সবচেয়ে বেশি ছবি তোলা বৃক্ষ লেক ওয়ানাকার উইলো গাছটিও।

নর্দার্ন রাতা গাছটি একটি পরাশ্রয়ী উদ্ভিদ হিসেবে হিসেবে জীবন শুরু করে। অর্থাৎ অন্য একটি গাছের ওপর আশ্রয় করে ছিল এটি। অবশেষে, এর শিকড় মাটিতে পৌঁছায় এবং এটি মূল গাছকে ঢেকে দেয়। এ প্রজাতির বৃক্ষ এক হাজার বছর বেঁচে থাকতে পারে। অবশ্য ওয়াকিং ট্রির বয়স কত, সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ১৮৭৫ সালে গাছটির অস্তিত্ব ছিল, এতটুকু নিশ্চিত হওয়া গেছে।

কারামিয়ার স্থানীয় বাসিন্দা পিট কারি বলেন, তাঁর পরিবার ১৮৭৫ সালে এই অঞ্চলে আসার সময় এখানকার জমি পরিষ্কার করেছিল। ‘জমিতে ছিল ঘন ঝোপ-জঙ্গল। আমার পরদাদা ও তাঁর ভাইয়ের খামার করার জন্য জমি পরিষ্কার করেন।’ বলেন তিনি। তবে এখন ওয়াকিং ট্রি নামে পরিচিত গাছটিকে তাঁরা রেখে দেন।

নিউজিল্যান্ড আরবরিকালচারাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট রিচি চিল বলেন, ‘ওয়াকিং ট্রি নিউজিল্যান্ডে যে অসাধারণ সব বৃক্ষ আছে, তার একটি বড় উদাহরণ।’ তিনি জানান, এই পুরস্কারটি স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জীবনে যে গাছগুলো গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে, তার স্বীকৃতি দেয়।


মন্তব্য