বাদশাহের ডিক্রি জারি

বিনা খরচে গাজাবাসীদের হজের সুযোগ দিচ্ছে সৌদি

গাজা
  © ফাইল ছবি

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজায় আগ্রাসন চালিয়ে যাচ্ছে দখলদার ইসরায়েল। তাদের নির্মম হামলায় কেঁপে উঠেছে পুরো বিশ্ব। দখলদার বাহিনীর নৃশংসতায় এখন পর্যন্ত গাজায় ৩৭ হাজার ১৬৪ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও ৮৪ হাজার ৮৩২ জন ফিলিস্তিনি। গাজায় হতাহত এই ফিলিস্তিনিদের পরিবারের জন্য বিনা খরচে হজের সুযোগ দিতে একটি ডিক্রি জারি করেছেন সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ।

ক্ষতিগ্রস্ত গাজাবাসীদের হজ পালনে সহযোগিতা করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ইতোমধ্যেই নির্দেশ দিয়েছেন বাদশাহ সালমান। তার এই নির্দেশের আওতায় আরও বাড়তি এক হাজার ফিলিস্তিনি পরিবার থেকে সৌদি আরবে বিনা খরচে হজ পালনের সুবিধা পাবেন।

সৌদি আরবে রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম আল-আরাবিয়া এ খবর জানিয়েছে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের বাদশাহর দপ্তর এক রাজকীয় নির্দেশ জারি করেছে।

বাদশাহ সালমানের রাজকীয় নির্দেশে বলা হয়েছে, গাজা উপত্যকার শহীদদের পরিবার থেকে হজযাত্রীদের সৌদি আরবে আনার জন্য একটি উদ্যোগ নিয়েছে রিয়াদ।

এই উদ্যোগের আওতায় ফিলিস্তিন থেকে মোট দুই হাজার হজযাত্রী আসবেন। তারা বিনা খরচে হজ করবেন।

সৌদি আরবের ইসলামিক অ্যাফেয়ার্স, দাওয়াহ অ্যান্ড গাইডেন্স মন্ত্রী শেখ আবদুল লতিফ বিন আবদুল আজিজ আল-শায়েখ বলেছেন, এই পদক্ষেপ ফিলিস্তিনের জন্য সব স্তরে আমাদের দেশের অটল সমর্থনকেই তুলে ধরে।

শেখ আবদুল লতিফ বিন আব্দুল আজিজ আল-শায়েখ আরও বলেছেন, এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গাজার ফিলিস্তিনি জনগণের কষ্ট-দুর্দশা কিছুটা প্রশমিত করবে। সৌদি সরকারের এমন মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি নতুন কিছু নয়। সৌদি আরবের প্রতিষ্ঠাকালীন বাদশাহ আবদুল আজিজের যুগ থেকে দেশটি ফিলিস্তিনি জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে।

মুসলিম বিশ্বে হজ অন্যতম অবশ্য পালনীয় ফরজ ইবাদত, যা প্রতি আরবি বছরের জিলহজ মাসে পবিত্র শহর মক্কায় অবস্থিত কাবাকে কেন্দ্র করে অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় সারা বিশ্ব থেকে লাখো মানুষ সৌদি আরবের মক্কায় সমবেত হন। মক্কার আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে জানিয়েছে, গত শনিবার পর্যন্ত ১৩ লাখ নিবন্ধিত হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন।


মন্তব্য