পুতিনের সঙ্গে বৈঠক করবেন এরদোগান, যা থাকছে আলোচনায় 

পুতিন
  © সংগৃৃহীত

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান বুধবার সকালে কাজাখস্তানের রাজধানী আস্তানা সফরে গেছেন। মধ্য এশিয়া, ভারত ও ইরানকে নিয়ে গঠিত বেইজিং নেতৃত্বাধীন আঞ্চলিক জোট সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) বৈঠকে অংশ নিতে সেখানে যান তিনি। এ সফরে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে তার বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।  

ফোরামের মূল অধিবেশনগুলোর পাশাপাশি এরদোগান রাজধানী আস্তানায় দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। যার মধ্যে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গেও বৈঠক হবে।

বৈঠকের আলোচ্যসূচিতে জ্বালানি থেকে শুরু করে বাণিজ্য ও পর্যটনের পাশাপাশি দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক এবং বৈশ্বিক বিষয়াদি অন্তর্ভুক্ত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। এরদোগান আবারও সিরিয়ায় সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের গুরুত্বের ওপর জোর দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, নেতারা ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়েও কথা বলবেন। ন্যাটো সদস্য তুরস্ক রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে সম্ভাব্য মধ্যস্থতাকারী হিসেবে নিজেদের অবস্থান তৈরি করছে।

এরদোগান দ্বিপক্ষীয় ও শীর্ষ বৈঠকের সময় গাজার বর্তমান পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

সম্মেলনে জ্বালানি, পরিবহন, লজিস্টিক, আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও অবকাঠামো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হবে। নেতাদের প্রাথমিক ফোকাস হবে অর্থনীতি এবং আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের দিকে।

রাশিয়া ও চীনের নেতারা পশ্চিমাবিরোধী জোটকে কঠোর করতে চাইছেন এবং কৌশলগত মধ্য এশিয়া অঞ্চলে তাদের প্রভাব বিস্তার করতে চাইছেন। রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র বেলারুশ ২০২৩ সালের শীর্ষ সম্মেলনে এসসিও'র সদস্য হওয়ার কথা জানানোর পর এ বৈঠকে যোগ দেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসও বৃহস্পতিবার দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনে ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল।


মন্তব্য