নিজেকে ‘কৃষ্ণাঙ্গ নারী’ বললেন বাইডেন

বাইডেন
  © সংগৃহীত

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জন্য ভুলভাল মন্তব্য করা নতুন কিছু নয়। এর আগেও একাধিকবার তিনি একটি বিষয়ের সঙ্গে আরেকটি গুলিয়ে ফেলেছেন। এবার তিনি নিজেকে কৃষ্ণাঙ্গ নারী বলেও দাবি করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ার একটি রেডিও স্টেশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এই দাবি করেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম টেলিগ্রাফের খবরে বলা হয়েছে, জো বাইডেন মূলত নিজেকে তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসনের ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বাইডেন। সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যাই হোক, আমি যেমনটা বলেছি—প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী হিসেবে ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে...একজন কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি গর্বিত।’ 

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি হিসেবে ২০০৮ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন বারাক ওবামা। পরে ২০২০ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী হিসেবে ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন কমলা হ্যারিস। আর ২০২০ সালে জো বাইডেন নিজেই প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেন। 

একই সাক্ষাৎকারে জো বাইডেন জানান তিনিই প্রথম প্রেসিডেন্ট হিসেবে কৃষ্ণাঙ্গ নারীকে ভাইস-প্রেসিডেন্ট ও আরেক কৃষ্ণাঙ্গ নারী কেতানজি ব্রাউন জ্যাকসনকে মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারক হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার বিষয়টি সঠিকভাবেই উল্লেখ করেন। 

এর আগে, গত বছরের নভেম্বরে বাইডেন তাঁর ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। হোয়াইট হাউসে স্ট্যানলি কাপের ফাইনালের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান ছিল। সেখানে কথা বলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সেখানে তিনি প্রথা অনুসারে তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে পরিচয় করিয়ে দিতে গিয়ে তাঁকে প্রেসিডেন্ট বলে আখ্যা দেন। 

তবে এমন হাস্যকর ভুল এই প্রথম নয়, এর আগেও বাইডেন মুখ ফসকে একাধিকবার হাস্যরসের জন্ম দিয়েছেন। একবার তো তিনি কমলা হ্যারিসকে ফার্স্ট লেডি বলেও আখ্যা দিয়েছিলেন। ২০২২ সালে একবার বাইডেন কমলা হ্যারিসকে ‘একজন মহান প্রেসিডেন্ট’ বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। সেদিন ছিল কমলা হ্যারিসের জন্মদিন। শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে বাইডেন বলেছিলেন, ‘শুভ জন্মদিন, হে মহান প্রেসিডেন্ট।’


মন্তব্য