বেনজীর আহমেদ দেশে নেই, সপরিবারে দেশ ছাড়েন ৪ মে

বেনজীর
বেনজীর আহমেদ  © ফাইল ছবি

দেশে নেই পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ। গত ৪ মে তিনি ঢাকা ত্যাগ করেছেন। এদিন সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সে করে সিঙ্গাপুর গেছেন সাবেক এই আইজিপি। ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের বিপুল সম্পদের তথ্য দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসার পর থেকে তাকে নিয়ে আলোচনা চলছে দেশজুড়ে। সেই সাথে প্রশ্ন উঠেছে, বেনজীর আহমেদ এখন কোথায় আছেন? নির্ভরযোগ্য ওই গোয়েন্দা সূত্রটি নিশ্চিত করেছে, তিনি এখন সিঙ্গাপুরেই অবস্থান করছেন। তার পাসপোর্ট ট্র্যাক করে দেখা গেছে, তিনি সেখান থেকে অন্য কোনো দেশে যাননি।

এদিকে, আজ শনিবার (১ মে) দুপুরে রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের বর্তমান অবস্থান নিয়ে সরকার নিশ্চিত নয়। তার দেশত্যাগের বিষয়ে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়নি। ব্যক্তির অপরাধের দায় বাহিনী নেবে না। দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ীই বেনজীর আহমেদের বিচার হবে।

বেনজীর আহমেদ ও তার স্ত্রী-সন্তানদের নামে গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, ঢাকাসহ কয়েকটি জেলায় ৬২১ বিঘা জমি, ঢাকার গুলশানে ৪টি ফ্ল্যাট, ৩৩টি ব্যাংক হিসাব, ১৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ৩টি বিও হিসাব (শেয়ার ব্যবসা করার বেনিফিশিয়ারি ওনার্স অ্যাকাউন্ট) এবং ৩০ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্রের সন্ধান পেয়েছে দুদক। সংস্থাটির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এসব সম্পদ জব্দ করার আদেশ দিয়েছেন আদালত। তবে, এর আগেই দেশ ছেড়েছেন তিনি।

২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল থেকে ২০২২ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আইজিপি ছিলেন বেনজীর আহমেদ। এর আগে তিনি র‍্যাবের মহাপরিচালক ও ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন।

মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ২০২১ সালের ডিসেম্বরে র‍্যাবের সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্র।যার মধ্যে বেনজীর আহমেদের নামও রয়েছে। ওই সময় দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের পাশাপাশি র‍্যাবের সাবেক কর্মকর্তারাও নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়েন। যুক্তরাষ্ট্র যখন নিষেধাজ্ঞা দেয়, তখন আইজিপির দায়িত্বে ছিলেন বেনজীর আহমেদ।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ