দাম্পত্যে দূরত্ব বাড়ছে? জেনে নিন করণীয়

দাম্পত্যে
  © ফাইল ছবি

দেশে দিনে দিনে ডিভোর্সের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। এই সমস্যা থেকে বের হতে হলে আমাদের সতর্ক না হলে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভাব। নিজেকে একটু প্রশ্ন করুন তো, দিনের কতটা সময় আপনি পার্টনারের সঙ্গে কাটান। এখনই উত্তর দিতে না পারলেও সমস্যা নেই, সময় নিয়ে চিন্তা করুন। শুধু একটু ভাবুন, আপনার প্রচেষ্টার অভাবেই দু’জনের মধ্যে দূরত্ব বাড়ছে কিনা। এটা অবশ্যই খতিয়ে দেখতে হবে। আর এই দূরত্ব কমাতে আপনাকে কিছু প্রশ্ন করতে হবে।

আপনি যখন আপনার বিবাহের মধ্যে একটি ক্রমবর্ধমান দূরত্ব অনুভব করতে শুরু করেন, তখন এটিকে শীঘ্রই সমাধান করা গুরুত্বপূর্ণ। এখানে কিছু পদক্ষেপ আপনি নিতে পারেন- 

যোগাযোগ করুন: খোলা এবং সৎ যোগাযোগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আপনি কেমন অনুভব করছেন সে সম্পর্কে আপনার সঙ্গীর সাথে কথা বলুন এবং তাদের দৃষ্টিভঙ্গিও শুনুন। দূরত্বের কারণ কী হতে পারে তা বোঝার চেষ্টা করুন।

সমস্যাগুলি চিহ্নিত করুন: নির্দিষ্ট সমস্যা বা পরিবর্তনগুলি চিহ্নিত করুন যা দূরত্বের দিকে পরিচালিত করেছে। এটা কি কাজের চাপ, একসাথে সময়ের মানের অভাব, অমীমাংসিত দ্বন্দ্ব বা অন্য কিছুর কারণে?

কোয়ালিটি টাইম: একসাথে কোয়ালিটি টাইম কাটানোর চেষ্টা করুন। এর মধ্যে নিয়মিত তারিখের রাতের সময় নির্ধারণ, হাঁটার জন্য যাওয়া বা আপনি উভয়ই উপভোগ করেন এমন কার্যকলাপে জড়িত থাকতে পারে।

সহায়তা নিন: দম্পতি থেরাপিস্ট বা পরামর্শদাতার কাছ থেকে নির্দেশিকা চাওয়ার কথা বিবেচনা করুন। তারা আপনার উদ্বেগ প্রকাশ করতে এবং একসাথে কাজ করার জন্য আপনার উভয়ের জন্য একটি নিরপেক্ষ স্থান প্রদান করতে পারে।

স্পার্ক পুনরুজ্জীবিত করুন: আপনার সম্পর্কের মধ্যে রোম্যান্স পুনরায় জাগিয়ে তোলার চেষ্টা করুন। ছোট ছোট অঙ্গভঙ্গি দিয়ে একে অপরকে চমকে দিন, একে অপরের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন এবং ঘনিষ্ঠতা বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করুন।

নিজের উপর কাজ করুন: কখনও কখনও, ব্যক্তিগত বৃদ্ধিতে ফোকাস করা সম্পর্কের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। আপনার শারীরিক এবং মানসিক সুস্থতার যত্ন নিন, আপনার আগ্রহগুলি অনুসরণ করুন এবং নিজের সেরা সংস্করণ হওয়ার চেষ্টা করুন।

ধৈর্য ধরুন: ঘনিষ্ঠতা পুনর্নির্মাণ করতে সময় এবং প্রচেষ্টা লাগে। আপনি এই চ্যালেঞ্জিং পর্যায়ে নেভিগেট করার সময় নিজের এবং আপনার সঙ্গীর সাথে ধৈর্য ধরুন।

প্রত্যাশাগুলি পুনরায় মূল্যায়ন করুন: সম্পর্কের জন্য আপনার প্রত্যাশাগুলি এবং সেগুলি বাস্তবসম্মত কিনা তা প্রতিফলিত করুন। উভয় অংশীদারই পরিপূর্ণ এবং মূল্যবান বোধ করে তা নিশ্চিত করার জন্য সামঞ্জস্য করার প্রয়োজন হতে পারে।

মনে রাখবেন, প্রতিটি সম্পর্ক উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে যায় এবং দূরত্বের সময়কাল অনুভব করা স্বাভাবিক। যেটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তা হল আপনি উভয়েই কীভাবে এই চ্যালেঞ্জগুলিকে একত্রে মোকাবেলা করতে এবং কাটিয়ে উঠতে পছন্দ করেন।


মন্তব্য


সর্বশেষ সংবাদ