প্রেমিকার বাবা আপনাকে পছন্দ করে না? যা করতে পারেন

প্রেমিকা
  © প্রতীকী ছবি

জীবনে অন্তত একবারও প্রেমে পড়েনি এমন কাউকে হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না। তবে প্রেমের সবচেয়ে বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় প্রেমিকার বাবা। আপনাকে হয়তো একেবারেই পছন্দ করে না প্রেমিকার বাবা। দেখা হলে অপমান করতেও ছাড়েন না। তাই তাকে দেখলে কথা বলার বদলে হয়তো উল্টো পথে হাঁটেন আপনি। তবে আপনি ভুল করছেন। প্রেমিকার বাবার মন গলাতে কথা বলা জরুরি। আরও কিছু কৌশল অবলম্বন করে প্রেমিকার বাবাকে রাজি করাতে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক কৌশলগুলি। 

ভালো-মন্দের খবর নিন: মেয়েরা সাধারণত বাবার পছন্দ-অপছন্দের খবর রাখেন। তাই প্রেমিকার থেকে নিয়মিত তাঁর বাবার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করতে পারে। তাঁর পছন্দ এবং অপছন্দের বিষয়গুলিকে জেনে রাখা খুব জরুরি। প্রয়োজনে ঠিক কাজে দেবে। যেমন ধরুন, এরপর যখনই তাঁর সঙ্গে দেখা হবে, তখন চেষ্টা করুন পছন্দের জিনিসগুলি নিয়ে কথা বলতে। দেখবেন ফল আপনি হাতেনাতে পাবেন।

দেখা হলে কথা বলুন: প্রেমিকার বাবার সঙ্গে দেখা হলে, না পালিয়ে কথা বলুন। মনে রাখবেন, যতদিন না ঠিকমতো কথা বলছেন, ততদিন সমস্যা থেকে রেহাই পাবেন না। তাই সময় নষ্ট না করে আজ থেকেই প্রেমিকার বাবার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করুন। পারলে তাঁর কাছে গিয়ে নিজের বিষয়ে সব খোলসা করুন। যদি তিনি কিছু বলেন, সেটিও মাথায় রাখার চেষ্টা করতে হবে। দেখবেন এই কাজটি করলে পরবর্তীতে পারিবারিক বন্ধন তৈরি আপনার জন্য সহজ হয়ে যাবে।

অপছন্দের কারণ জানুন: প্রেমিকার বাবা যদি আপনাকে পছন্দ না করে, তবে তার পিছনে নিশ্চয়ই কোনো কারণ রয়েছে। বিষয়টা আপনাকে দ্রুত খুঁজে বের করতে হবে। তারপর নিজেকে পছন্দের পাত্রে পরিবর্তন করতে কাজে লেগে পড়ুন। আশা করা যায়, এই কাজটা করলেই পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে যেতে পারে। দেখবেন, প্রেমিকার বাবা আপনাকে এক সময় ঠিকই মেনে নেবেন। তাই ঝটপট কাজে লেগে পড়তে পারেন।

সময় দিলেই মিটে যাবে সমস্যা: সময় দিলে যেকোনো সমস্যার সমাধান সম্ভব। শত প্রচেষ্টার পরও যদি প্রেমিকার বাবা আপনাকে মানতে না চান, তাতে মন খারাপ করে লাভ নেই। কিছুটা সময় অপেক্ষা করুন। তাঁকে তাঁর মতো ছেড়ে দিন। আর আপনারা সমাধানের পথ খুঁজতে থাকুন। নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ তাঁর সামনে তুলে ধরুন। দেখবেন একসময় ঠিকই মেনে নিয়েছে।


মন্তব্য